প্রচ্ছদ

এক যুগে শুধু রাবি ক্যাম্পাসেই ছাত্রলীগের ৫ খুন

2022/03/17/_post_thumb-2022_03_17_23_34_50.png

ক্ষমতাসীনদের গত এক যুগে ক্যাম্পাস গুলোতে যে পরিমান হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় তার থেকে অন্যতম। গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী  শুধু রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই ৫ জনকে হত্যা করেছে ছাত্রলীগ। এছাড়া অপ্রকাশিত বহু খুন প্রকাশও পায়নি।

শরিফুজ্জামান হত্যা: ২০০৯ সালের ১৩ মার্চ ছাত্রলীগের হামলায় নিহত হন রাবির শিবিরের সাধারণ সম্পাদক শরিফুজ্জামান নোমানী।

ফারুক হত্যা: পরের বছর ২০১০ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল দখলকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত হন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ কর্মী ও গণিত বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী ফারুক হোসেন।

নাসিম হত্যা: একই বছর ১৫ আগস্ট শোক দিবসে টোকেন ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে শাহ মখদুম হলের দোতলার ছাদ থেকে ছাত্রলীগ কর্মী নাসিরুল্লাহ নাসিমকে ফেলে হত্যা করে ছাত্রলীগ সভাপতি গ্রুপের কর্মীরা।

সোহেল হত্যা: ২০১২ সালের ১৫ জুলাই রাতে ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপেরনেতাকর্মীদের মাঝে গোলাগুলির ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র ও ছাত্রলীগ কর্মী আবদুল্লাহ আল হাসান ওরফে সোহেল।

পদ্মা সেতুর চাঁদা তোলাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের এই আভ্যন্তরীণ কোন্দল লাগে বলে রিপোর্টে প্রকাশ।

রুস্তম হত্যা: ছাত্রলীগের আভ্যন্তরীণ কোন্দলের বলি হন বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রুস্তম আলী আকন্দ। ২০১৪ সালের ৪ এপ্রিল নিজ কক্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান তিনি।

মন্তব্য