জাতীয়

করোনায় আরো ২৩১ জনের মৃত্যু

2021/08/01/_post_thumb-2021_08_01_19_17_47.jpg

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরো ২৩১ জন মারা গেছেন। এনিয়ে দেশে মোট মৃত্যু ২০ হাজার ৯১৬ জনে পৌঁছেছে। এছাড়া একই সময়ে আরো ১৪ হাজার ৮৪৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ লাখ ৬৪ হাজার ৩২৮ জনে দাঁড়িয়েছে।

রবিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, এ পর্যন্ত করোনায় দেশে মৃত্যুর হার ১.৬৫ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় ৪৯ হাজার ৫২৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। শনাক্তের হার ২৯.৯৭ শতাংশ।

এদিকে নতুন ১৫ হাজার ৫৪ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছে ১০ লাখ ৯৩ হাজার ২৬৬ জন। সুস্থতার হার ৮৬.৪৭ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ৭৭ জন, খুলনা বিভাগে ৪৪ জন, চট্টগ্রামে ৫৩ জন, রংপুরে ১৮ জন, বরিশালে ৬ জন, সিলেটে ৯ জন, রাজশাহীতে ১৩ জন এবং ময়মনসিংহে ১১ জন মারা গেছেন।

কঠোর লকডাউনের মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকরা কর্মস্থলে ফেরায় করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাস সংক্রমণ মহামারির মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকরা কর্মস্থলে ফেরায় করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে। একদিনের ঘোষণায় শ্রমিকরা ঝুঁকি নিয়ে কর্মস্থলে ফিরছে, এটা আমাদের জন্য আরো ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি নিয়ে আসতে পারে।’

রোববার মহাখালীর বিসিপিএস অডিটোরিয়াম হলে ‘প্রথমবর্ষ এমবিবিএস শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে’ তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে করোনা এখনো ঊর্ধ্বমুখী। তাই সবাইকেই বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে।

ঢাকার সব জেলা ও মহানগরে আগামীকাল সোমবার থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় টিকার ডোজ প্রয়োগ শুরু হবে। এছাড়া আগমী ৭ আগস্ট দেশের সকল কেন্দ্রে এই টিকার দ্বিতীয় ডোজ প্রয়োগ শুরু হবে।

রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত করোনা স্বাস্থ্য বুলেটিনে অধিদপ্তরের টিকা কর্মসূচির পরিচালক ডা. শামসুল হক এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, আগামীকাল ঢাকা বিভাগের সকল জেলায় এবং আগমী ৭ আগস্ট দেশের সকল কেন্দ্রে ঘাটতি টিকার ডোজ প্রয়োগ শুরু হবে। সেক্ষেত্রে প্রথম ডোজের পর অপেক্ষমানদের মুঠোফোনে ক্ষুদে বার্তা পাঠানো হবে। তবে দ্বিতীয় ডোজের জন্য ইতোপূর্বে যাদেরকে এসএমএস দেয়া হয়েছিল কিন্তু টিকা পাননি তারা দ্বিতীয় ডোজ নিতে এসএমএস প্রয়োজন হবে না।


বিশ্ব পরিস্থিতি

বিশ্বে মহামারি করোনাভাইরাসের নতুন ডেল্টা ধরনের কারণে প্রতিদিনই বাড়ছে রোগী ও আক্রান্তদের মৃত্যু সংখ্যা। বর্তামানে ডেল্টার নতুন ধরন ডেল্টা প্লাস’ও শনাক্ত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের জনস্ হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, রবিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা ৪২ লাখ ১৫ হাজার ৮৮৮ জন এবং মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ কোটি ৭৭ লাখ ৬৭ হাজার ৮৫৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

এ পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে মোট ৪০৭ কোটি ৮৯ লাখ ১ হাজার ৮৪১ ডোজ করোনার টিকা প্রদান করা হয়েছে।

করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ আমেরিকায় এখন পর্যন্ত মোট শনাক্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৪৯ লাখ ৭৫ হাজার ৫৪০ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছে ৬ লাখ ১৩ হাজার ১৩৫ জন।

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৫৬ হাজার ৩৭০ জনে। দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১ কোটি ৯৯ লাখ ১৭ হাজার ৮৫৫ জন। মৃত্যুর দিক দিয়ে দেশটির অবস্থান দ্বিতীয়।

এদিকে বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ ভারতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ১৬ লাখ ১৩ হাজার ৯৯৩ জন। একই সময়ে মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ২৩ হাজার ৮১০ জনে।


সূত্র : ইউএনবি

মন্তব্য