প্রচ্ছদ

চাঁদা না দেয়ায় ছাত্রের দুই আঙ্গুল কাটলো ছাত্রলীগ

2021/09/29/_post_thumb-2021_09_29_23_27_50.jpg

চাঁদা না দেয়ায় বগুড়ায় ধামইরহাটের মেধাবী ছাত্র আনারুলের হাতের ২ টি আঙ্গুল কেটে দিয়েছে ছাত্রলীগ।

জানাগেছে, আনারুল ২০১৭ সালে ধামইরহাট উপজেলা সদরস্থ সফিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ -৫ পেয়ে এসএসসি পাস করে। পরে বগুড়া পলিটেকনিক্যাল ইন্সটিটিউট এ ভর্তি হন।

শিক্ষার্থী আনারুল নওগাঁ জেলার চকউমর পাটারী পাড়া থানার মা সাহারা খাতুন ও পিতা নজরুল ইসলামের ছেলে।

সূত্র বলছে, গত ২৪ সেপ্টেম্বর সকাল আনুমানিক ৯ টায় একই কলেজের ২ জন কথিত বড় ভাই পরিচয় দেয়া ছাত্রলীগের দুই নেতা মেসে এসে চাঁদার দাবী করে।  পরে চাাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তার দুই আঙ্গুল কেটে দেয়।

জানা যায়, ছাত্রাবাস থেকে পড়তে হলেও দিতে হবে চাঁদা এমন দাবি না মানায় ডান হাতের দুই টি আঙ্গুল কেটে দিয়েছে ছাত্র নামধারী সন্ত্রাসীরা।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর সকাল আনুমানিক ৯ টায় একই কলেজের দুই কথিত বড় ভাই আনারুলের রুমে ঢুকে প্রথমে মূখে কাপড় গুজে দিয়ে একটি ওয়াশ রুমে নিয়ে হাত পিঠমোড়া করে প্লাস দিয়ে ডান হাতের ২ টি আঙ্গুল কেটে দেয়। পরে তাকে অনেকটা গোপনে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।  বর্তমানে সে গ্রামের বাড়ীতে রয়েছে। 

আনারুলের মা সাহারা খাতুন জানান, "আমি খুব গরীব মানুষ। মানুষ থেকে চেয়ে এনে ছেলেকে লেখাপড়া করাচ্ছি। সেখানে সন্ত্রাসীরা আমার কলেজ পড়ুয়া ছেলের হাতের আঙ্গুল কেটে দিয়েছে, আমি এর কঠোর বিচার চাই। এত বড় ঘটনার পরেও কলেজ কর্তৃপক্ষ ও বগুড়া সদর থানা নিশ্চুপ কেন?" এছাড়া উল্টো আমার বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকিও দেয়া হচ্ছে।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আনারুল একটি ছোট ঘরে শুয়ে রয়েছে। সেই ঘরের কোন জানালা নেই। বাড়ীতে খাবার নেই। চিকিৎসাও ঠিক মত হচ্ছে না।

মন্তব্য