ঢাকা ০৭:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ফেনীর আল-জামেয়াতুল ফালাহিয়া কামিল মাদরাসার দুই ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে

মাদরাসা ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি ভাইরাল

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় ১১:৫৫:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ অক্টোবর ২০২৩
  • / ১৮৪ বার পড়া হয়েছে

আবদুল আজিজ ফিরোজ ও জান্নাতুল ফেরদৌস নাদিয়ার অন্তরঙ্গ ছবি

ফেনীর আল-জামেয়াতুল ফালাহিয়া কামিল মাদরাসার দুই ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এ ঘটনার পর তাদেরকে মাদরাসা শাখা ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এরা হলো আবদুল আজিজ ফিরোজ, আলিম শ্রেণির ফলপ্রার্থী এবং জান্নাতুল ফেরদৌস নাদিয়া, দাখিল শ্রেণির শিক্ষার্থী। ফিরোজ ফালাহিয়া ছাত্রলীগের পাশাপাশি পৌর ছাত্রলীগেরও পরিবেশ-বিষয়ক সম্পাদক।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্র জানায়, গত ক’দিন ধরে ফিরোজ ও নাদিয়ার বেশ কিছু অন্তরঙ্গ ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এ ঘটনায় ফালাহিয়া ছাত্রলীগের সভাপতি পরিচয়ধারী তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী অপু স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ফিরোজ-নাদিয়াকে বহিষ্কার করা হয়।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ফেনী পৌর শাখার আওতাধীন ফেনী আল জামেয়াতুল ফালাহিয়া কামিল মাদরাসা ছাত্রলীগের এক জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, সংগঠনের শৃঙ্খলা ও নীতি আদর্শ পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকায় জান্নাতুল ফেরদৌস নাদিয়া এবং আবদুল আজিজ ফিরোজ ফালাহিয়া ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়।’

আবদুল আজিজ ফিরোজ ও জান্নাতুল ফেরদৌস নাদিয়ার অন্তরঙ্গ ছবি

ফেনী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী নিজাম উদ্দিন শুভ জানান, ফালাহিয়া ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কারের এখতিয়ার কারো নেই। এটি জেলা ছাত্রলীগের নির্দেশক্রমে পৌর ছাত্রলীগ করতে পারবে। তাছাড়া ফিরোজ পৌর ছাত্রলীগের পরিবেশ সম্পাদক, ফালাহিয়া মাদরাসার কমিটিতে নেই।

এ ব্যাপারে আবদুল আজিজ ফিরোজের বক্তব্য জানতে ফোন করা হলে সাংবাদিক পরিচয় জেনে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন।

জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক নুর করিম জাবেদ জানান, ফালাহিয়া মাদরাসায় ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই। ফালাহিয়া মাদরাসায় সভাপতির পরিচয় দেয়া অপু জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে রয়েছে। ওই মাদরাসায় কমিটি পুনর্গঠনে তাদের চিন্তা রয়েছে।

জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তোফায়েল আহমেদ তপু জানান, ফালাহিয়া মাদরাসায় বহিষ্কারের ঘটনা সংগঠন বহির্ভূত। ফেনীতে ছাত্রলীগ থেকে কাউকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত তাদের নেই।

ফালাহিয়া মাদরাসা ছাত্রলীগের সভাপতি তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী অপু জানান, মাদরাসায় ফিরোজ-নাদিয়ার উশৃঙ্খল চলাফেরা এবং শিক্ষকদের সাথে অসদাচরণ করেন। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার তাদের সতর্ক করা হয়েছে। তাতেও সংশোধন না হওয়ায় স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ফেনীর আল-জামেয়াতুল ফালাহিয়া কামিল মাদরাসার দুই ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে

মাদরাসা ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি ভাইরাল

আপডেট সময় ১১:৫৫:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ অক্টোবর ২০২৩

ফেনীর আল-জামেয়াতুল ফালাহিয়া কামিল মাদরাসার দুই ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীর অন্তরঙ্গ ছবি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এ ঘটনার পর তাদেরকে মাদরাসা শাখা ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এরা হলো আবদুল আজিজ ফিরোজ, আলিম শ্রেণির ফলপ্রার্থী এবং জান্নাতুল ফেরদৌস নাদিয়া, দাখিল শ্রেণির শিক্ষার্থী। ফিরোজ ফালাহিয়া ছাত্রলীগের পাশাপাশি পৌর ছাত্রলীগেরও পরিবেশ-বিষয়ক সম্পাদক।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্র জানায়, গত ক’দিন ধরে ফিরোজ ও নাদিয়ার বেশ কিছু অন্তরঙ্গ ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এ ঘটনায় ফালাহিয়া ছাত্রলীগের সভাপতি পরিচয়ধারী তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী অপু স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ফিরোজ-নাদিয়াকে বহিষ্কার করা হয়।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ফেনী পৌর শাখার আওতাধীন ফেনী আল জামেয়াতুল ফালাহিয়া কামিল মাদরাসা ছাত্রলীগের এক জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, সংগঠনের শৃঙ্খলা ও নীতি আদর্শ পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকায় জান্নাতুল ফেরদৌস নাদিয়া এবং আবদুল আজিজ ফিরোজ ফালাহিয়া ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়।’

আবদুল আজিজ ফিরোজ ও জান্নাতুল ফেরদৌস নাদিয়ার অন্তরঙ্গ ছবি

ফেনী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী নিজাম উদ্দিন শুভ জানান, ফালাহিয়া ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কারের এখতিয়ার কারো নেই। এটি জেলা ছাত্রলীগের নির্দেশক্রমে পৌর ছাত্রলীগ করতে পারবে। তাছাড়া ফিরোজ পৌর ছাত্রলীগের পরিবেশ সম্পাদক, ফালাহিয়া মাদরাসার কমিটিতে নেই।

এ ব্যাপারে আবদুল আজিজ ফিরোজের বক্তব্য জানতে ফোন করা হলে সাংবাদিক পরিচয় জেনে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন।

জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক নুর করিম জাবেদ জানান, ফালাহিয়া মাদরাসায় ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই। ফালাহিয়া মাদরাসায় সভাপতির পরিচয় দেয়া অপু জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে রয়েছে। ওই মাদরাসায় কমিটি পুনর্গঠনে তাদের চিন্তা রয়েছে।

জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তোফায়েল আহমেদ তপু জানান, ফালাহিয়া মাদরাসায় বহিষ্কারের ঘটনা সংগঠন বহির্ভূত। ফেনীতে ছাত্রলীগ থেকে কাউকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত তাদের নেই।

ফালাহিয়া মাদরাসা ছাত্রলীগের সভাপতি তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী অপু জানান, মাদরাসায় ফিরোজ-নাদিয়ার উশৃঙ্খল চলাফেরা এবং শিক্ষকদের সাথে অসদাচরণ করেন। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার তাদের সতর্ক করা হয়েছে। তাতেও সংশোধন না হওয়ায় স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।