ঢাকা ০৮:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাজায় হাসপাতালের বাইরের রাস্তায় কয়েক ডজন লাশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৮:০৩:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২৩
  • / ১২৭ বার পড়া হয়েছে

অবরুদ্ধ ইসরাইলি হামলায় ব্যাপ্টিস্ট হাসপাতাল নামে পরিচিত আহলি আরব হাসপাতালের বাইরের রাস্তায় কয়েক ডজন লাশ পড়ে রয়েছে।

জিহাদ আবু শানাব নামে এক সাংবাদিক বিষয়টি আলজাজিরাকে জানিয়েছেন। তিনি এ পরিস্থিতিকে ‘সম্পূর্ণ ধ্বংসযজ্ঞ’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

তিনি আরো যা জানিয়েছেন, সংক্ষেপে তা হলো :
– হাসপাতালের আশপাশের ভবনগুলো বিধ্বস্ত করে মাটিতে মিলিয়ে দেয়া হয়েছে।
– রাস্তায় কয়েক ডজন লাশ পড়ে রয়েছে।
– অনেকগুলো লাশ বিকৃত হয়ে চেনা যাচ্ছে না।
– লোকজন যত সম্ভব লাশগুলো দাফনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

গাজার সবচেয়ে বড় হাসপাতাল আল-শিফায় ইসরাইলি বাহিনীর নিয়ন্ত্রণ নেয়া এবং সেটি খালি করার বিষয়টিকে অপরাধ হিসেবে বর্ণনা করেছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ।

এক বিবৃতিতে তারা বলে, আল-শিফা হাসপাতালে উচ্ছেদ কার্যক্রম গাজায় মানবিক ও পরিবেশগত বিপর্যয়কে আরো গভীর করবে। এটি দক্ষিণ গাজার হাসপাতালের ওপর চাপ বাড়াবে।

এতে আরো বলা হয়, এটি ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে দখলদার বাহিনীর দ্বারা সংঘটিত জাতিগত নির্মূল এবং গণহত্যার অপরাধের আরেকটি জঘন্য দিক।

এদিকে, আল-শিফা হাসপাতালের অভিযান সম্পর্কে সাংবাদিক জিহাদ আবু শানাব জানিয়েছেন, সেখান থেকে জোর করে সরিয়ে দেয়া লোকজন কোনো যানবাহন পাচ্ছে না। পায়ে হেঁটেই তাদের সরে যেতে হচ্ছে।

সেখান থেকে বের করে দেয়া রোগীদের অবস্থা খুবই খারাপ। তারা সরতে পারছেন না। তাদের বিশেষ সেবা ও সহায়তা প্রয়োজন।

অসম্পূর্ণ শিশুদের বেলায় কী ঘটছে তা পরিষ্কার না।

সূত্র : আল-জাজিরা

নিউজটি শেয়ার করুন

গাজায় হাসপাতালের বাইরের রাস্তায় কয়েক ডজন লাশ

আপডেট সময় ০৮:০৩:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২৩

অবরুদ্ধ ইসরাইলি হামলায় ব্যাপ্টিস্ট হাসপাতাল নামে পরিচিত আহলি আরব হাসপাতালের বাইরের রাস্তায় কয়েক ডজন লাশ পড়ে রয়েছে।

জিহাদ আবু শানাব নামে এক সাংবাদিক বিষয়টি আলজাজিরাকে জানিয়েছেন। তিনি এ পরিস্থিতিকে ‘সম্পূর্ণ ধ্বংসযজ্ঞ’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

তিনি আরো যা জানিয়েছেন, সংক্ষেপে তা হলো :
– হাসপাতালের আশপাশের ভবনগুলো বিধ্বস্ত করে মাটিতে মিলিয়ে দেয়া হয়েছে।
– রাস্তায় কয়েক ডজন লাশ পড়ে রয়েছে।
– অনেকগুলো লাশ বিকৃত হয়ে চেনা যাচ্ছে না।
– লোকজন যত সম্ভব লাশগুলো দাফনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

গাজার সবচেয়ে বড় হাসপাতাল আল-শিফায় ইসরাইলি বাহিনীর নিয়ন্ত্রণ নেয়া এবং সেটি খালি করার বিষয়টিকে অপরাধ হিসেবে বর্ণনা করেছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ।

এক বিবৃতিতে তারা বলে, আল-শিফা হাসপাতালে উচ্ছেদ কার্যক্রম গাজায় মানবিক ও পরিবেশগত বিপর্যয়কে আরো গভীর করবে। এটি দক্ষিণ গাজার হাসপাতালের ওপর চাপ বাড়াবে।

এতে আরো বলা হয়, এটি ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে দখলদার বাহিনীর দ্বারা সংঘটিত জাতিগত নির্মূল এবং গণহত্যার অপরাধের আরেকটি জঘন্য দিক।

এদিকে, আল-শিফা হাসপাতালের অভিযান সম্পর্কে সাংবাদিক জিহাদ আবু শানাব জানিয়েছেন, সেখান থেকে জোর করে সরিয়ে দেয়া লোকজন কোনো যানবাহন পাচ্ছে না। পায়ে হেঁটেই তাদের সরে যেতে হচ্ছে।

সেখান থেকে বের করে দেয়া রোগীদের অবস্থা খুবই খারাপ। তারা সরতে পারছেন না। তাদের বিশেষ সেবা ও সহায়তা প্রয়োজন।

অসম্পূর্ণ শিশুদের বেলায় কী ঘটছে তা পরিষ্কার না।

সূত্র : আল-জাজিরা