ঢাকা ০২:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ-জমার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত লোকসমাগম না করার বিষয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এ নির্দেশনা কেউ মানছেন না

যানজটে স্থবির গুলিস্তান, ট্রাফিক পুলিশ ‘নিরুপায়’

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৫:২০:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০২৩
  • / ১২৬ বার পড়া হয়েছে

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি-জমাকে কেন্দ্র করে রাজধানীর গুলিস্তান এলাকার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা কার্যত ভেঙে পড়েছে।

ঘণ্টার পর ঘণ্টা পেরিয়ে যাচ্ছে। তবু এ এলাকার সড়ক দিয়ে যানবাহন এগোতে পারছে না। ফলে চরম ভোগান্তি পোহাচ্ছেন চালক ও যাত্রীরা।

এমন পরিস্থিতিতে এ এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা বলছেন, তাঁরা নিরুপায়। তাঁদের কিছুই করার নেই।

গত শনিবার থেকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করে আওয়ামী লীগ। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে এ ফরম বিক্রি করা হচ্ছে। ফরম সংগ্রহ ও জমা দেওয়া শেষ হবে আজ মঙ্গলবার।

ফরম সংগ্রহ-জমাকে কেন্দ্র করে গত শনিবার থেকেই শত শত নেতা-কর্মী নিয়ে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা দলীয় কার্যালয়ে আসছেন।

মনোনয়নপ্রত্যাশীদের কেউ আসছেন মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা নিয়ে, কেউ আসছেন পিকআপ ভ্যানের বহর নিয়ে গান-বাদ্য বাজিয়ে। আবার কেউবা শত শত নেতা-কর্মীর মিছিল নিয়ে আসছেন। এ কারণে গত শনিবার থেকে গুলিস্তান এলাকার সড়কে ভয়াবহ যানজট লেগে থাকছে।

যানজটে বসে থাকতে থাকতে ঘুমিয়ে পড়েছেন বাসচালক

আজ দুপুরের দিকে জিরো পয়েন্ট মোড়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘আজ হরতাল-অবরোধ নেই। কাল বুধবার থেকে ৪৮ ঘণ্টা অবরোধ আছে। এ কারণে আজ সড়কে যানবাহনের চাপ এমনিতেই বেশি। এর মধ্যে শত শত নেতা-কর্মী আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যাচ্ছেন, আসছেন। সব মিলিয়ে এ এলাকায় যানজট পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। আমরা নিরুপায়। আমাদের কিছুই করার নেই।’

একই মোড়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, আজ দুপুর ১২টা থেকে চানখারপুল মোড় এলাকা দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কারণ, হাজী সেলিম বিশাল বহন নিয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দিতে যাবেন। তাই সড়কে এ অবস্থা তৈরি হয়েছে।

আজ দুপুরের দিকে জিরো পয়েন্টে এক ঘণ্টার বেশি সময় ধরে যানজটে আটকে থাকতে দেখা যায় শত শত যানবাহন।

গুলিস্তান থেকে গাজীপুরের চন্দ্রা রুটে চলাচলকারী প্রভাতী বনশ্রী পরিবহন নামের একটি বাসের চালকের সহকারী মো. মিজান বলেন, এক ঘণ্টা ধরে আটকে আছেন তাঁরা। হরতাল-অবরোধ থাকলে তাঁরা গাড়ি চালান না। আজ হরতাল-অবরোধ কিছুই নেই। তাই সড়কে নেমেছেন। সড়কে নেমে যানজটে পড়ে দিনই শেষ।

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ পাশের সড়কে ঘণ্টাখানেক ধরে যানজটে অনেক যানবাহনকে আটকে থাকতে দেখা যায়। এদিকে যানজটে আটকা পড়া রাজধানীর খিলগাঁও থেকে গুলিস্তান হয়ে মোহাম্মদপুরের দিকে চলাচলকারী মিডলাইন পরিবহন নামের বাসের চালক আবদুল আলিম বলেন, গত শনিবার থেকে গুলিস্তান এলাকার অবস্থা খুবই খারাপ।

গুলিস্তান এলাকায় যানজটে আটকা পড়ে অনেক বাসচালককে আসনে বসেই ঘুমিয়ে যেতে দেখা যায়।

মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ-জমার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত লোকসমাগম না করার বিষয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এ নির্দেশনা কেউ মানছেন না।

আজ সকাল ১০টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করে দেখা যায়, ঢাকা-২ আসনের জন্য কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ মনোনয়ন ফরম জমা দিতে এসেছেন। তিনি শত শত মোটরসাইকেল ও পিকআপ ভ্যানে করে লোকজন নিয়ে এসেছেন।

একই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য কামরুল ইসলাম গতকাল সোমবার বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী নিয়ে শোভাযাত্রা করে মনোনয়ন ফরম জমা দেন।

ঢাকা-১৪ আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম জমা দিতে আজ শত শত লোক নিয়ে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আসেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরী।

জিরো পয়েন্টের যানজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাসে বসে থেকে বিরক্ত হয়ে এক যাত্রী হেঁটেই গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেন। ফার্মগেটে যাবেন জানিয়ে তিনি বলেন, পুরান ঢাকার আদালতপাড়া থেকে দুই ঘণ্টায় গুলিস্তানে এসেছেন। এখন নিরুপায় হয়ে হাঁটা দিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ-জমার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত লোকসমাগম না করার বিষয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এ নির্দেশনা কেউ মানছেন না

যানজটে স্থবির গুলিস্তান, ট্রাফিক পুলিশ ‘নিরুপায়’

আপডেট সময় ০৫:২০:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০২৩

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি-জমাকে কেন্দ্র করে রাজধানীর গুলিস্তান এলাকার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা কার্যত ভেঙে পড়েছে।

ঘণ্টার পর ঘণ্টা পেরিয়ে যাচ্ছে। তবু এ এলাকার সড়ক দিয়ে যানবাহন এগোতে পারছে না। ফলে চরম ভোগান্তি পোহাচ্ছেন চালক ও যাত্রীরা।

এমন পরিস্থিতিতে এ এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা বলছেন, তাঁরা নিরুপায়। তাঁদের কিছুই করার নেই।

গত শনিবার থেকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করে আওয়ামী লীগ। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে এ ফরম বিক্রি করা হচ্ছে। ফরম সংগ্রহ ও জমা দেওয়া শেষ হবে আজ মঙ্গলবার।

ফরম সংগ্রহ-জমাকে কেন্দ্র করে গত শনিবার থেকেই শত শত নেতা-কর্মী নিয়ে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা দলীয় কার্যালয়ে আসছেন।

মনোনয়নপ্রত্যাশীদের কেউ আসছেন মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা নিয়ে, কেউ আসছেন পিকআপ ভ্যানের বহর নিয়ে গান-বাদ্য বাজিয়ে। আবার কেউবা শত শত নেতা-কর্মীর মিছিল নিয়ে আসছেন। এ কারণে গত শনিবার থেকে গুলিস্তান এলাকার সড়কে ভয়াবহ যানজট লেগে থাকছে।

যানজটে বসে থাকতে থাকতে ঘুমিয়ে পড়েছেন বাসচালক

আজ দুপুরের দিকে জিরো পয়েন্ট মোড়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘আজ হরতাল-অবরোধ নেই। কাল বুধবার থেকে ৪৮ ঘণ্টা অবরোধ আছে। এ কারণে আজ সড়কে যানবাহনের চাপ এমনিতেই বেশি। এর মধ্যে শত শত নেতা-কর্মী আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যাচ্ছেন, আসছেন। সব মিলিয়ে এ এলাকায় যানজট পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। আমরা নিরুপায়। আমাদের কিছুই করার নেই।’

একই মোড়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, আজ দুপুর ১২টা থেকে চানখারপুল মোড় এলাকা দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কারণ, হাজী সেলিম বিশাল বহন নিয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দিতে যাবেন। তাই সড়কে এ অবস্থা তৈরি হয়েছে।

আজ দুপুরের দিকে জিরো পয়েন্টে এক ঘণ্টার বেশি সময় ধরে যানজটে আটকে থাকতে দেখা যায় শত শত যানবাহন।

গুলিস্তান থেকে গাজীপুরের চন্দ্রা রুটে চলাচলকারী প্রভাতী বনশ্রী পরিবহন নামের একটি বাসের চালকের সহকারী মো. মিজান বলেন, এক ঘণ্টা ধরে আটকে আছেন তাঁরা। হরতাল-অবরোধ থাকলে তাঁরা গাড়ি চালান না। আজ হরতাল-অবরোধ কিছুই নেই। তাই সড়কে নেমেছেন। সড়কে নেমে যানজটে পড়ে দিনই শেষ।

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ পাশের সড়কে ঘণ্টাখানেক ধরে যানজটে অনেক যানবাহনকে আটকে থাকতে দেখা যায়। এদিকে যানজটে আটকা পড়া রাজধানীর খিলগাঁও থেকে গুলিস্তান হয়ে মোহাম্মদপুরের দিকে চলাচলকারী মিডলাইন পরিবহন নামের বাসের চালক আবদুল আলিম বলেন, গত শনিবার থেকে গুলিস্তান এলাকার অবস্থা খুবই খারাপ।

গুলিস্তান এলাকায় যানজটে আটকা পড়ে অনেক বাসচালককে আসনে বসেই ঘুমিয়ে যেতে দেখা যায়।

মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ-জমার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত লোকসমাগম না করার বিষয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এ নির্দেশনা কেউ মানছেন না।

আজ সকাল ১০টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করে দেখা যায়, ঢাকা-২ আসনের জন্য কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ মনোনয়ন ফরম জমা দিতে এসেছেন। তিনি শত শত মোটরসাইকেল ও পিকআপ ভ্যানে করে লোকজন নিয়ে এসেছেন।

একই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য কামরুল ইসলাম গতকাল সোমবার বিপুলসংখ্যক নেতা-কর্মী নিয়ে শোভাযাত্রা করে মনোনয়ন ফরম জমা দেন।

ঢাকা-১৪ আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম জমা দিতে আজ শত শত লোক নিয়ে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আসেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরী।

জিরো পয়েন্টের যানজটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাসে বসে থেকে বিরক্ত হয়ে এক যাত্রী হেঁটেই গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেন। ফার্মগেটে যাবেন জানিয়ে তিনি বলেন, পুরান ঢাকার আদালতপাড়া থেকে দুই ঘণ্টায় গুলিস্তানে এসেছেন। এখন নিরুপায় হয়ে হাঁটা দিয়েছেন।