ঢাকা ০১:৩১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৃণাল কান্তি দাসের এক সমর্থককে গুলি করে হত্যা

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ১০:৪৩:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ২৯১ বার পড়া হয়েছে

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনে নির্বাচনি প্রচারের শেষের দিকে ডালিম সরকার (৩০) নামে নৌকার প্রার্থী মৃণাল কান্তি দাসের এক সমর্থককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। পিটিয়ে আহত করা হয়েছে আরেক সমর্থক সোহেলকে।

অভিযোগ উঠেছে কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ ফয়সালের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে সদর উপজেলার মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের মুন্সীকান্দি গ্রামের নৌকার ক্যাম্পে গুলিবিদ্ধ হলে বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

নিহত ডালিম মুন্সীকান্দি গ্রামের নুর হোসেন সরকারের ছেলে। তার তিন বছরের এক মেয়ে ও দুই মাসের এক ছেলে রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, কাঁচি প্রতীকের প্রার্থী হাজি মো. ফয়সাল বিপ্লবের সমর্থক মোল্লা কান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মো. রিপন পাটোয়ারীর ভাই শিপন পাটোয়ারী ও সোহাগের নেতৃত্বে ১০-১২ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল নৌকার ক্যাম্পের সামনে এসে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এতে ডালিম গুলিবিদ্ধ হন। তারা সোহেলকেও মারধর করে আহত করেন৷ পরে গুলিবিদ্ধ গুরুতর আহত ডালিমকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডালিমকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পুরো ইউনিয়নজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

হামলায় আহত সোহেল বলেন, আমরা নৌকার ক্যাম্পে অবস্থান করছিলাম। হঠাৎ করে রাত সাড়ে ১২টার দিকে শিপন পাটোয়ারীর নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী দল ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে ডালিমকে গুরুতর আহত করে। এ সময় আমরা ডালিমকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে আমাকে পিটিয়ে আহত করে।

ডালিমের মামাশ্বশুর শাহিন মিয়া জানান, বুকের বাম পাশে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় প্রথমে ডালিমকে মুন্সীগঞ্জের জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভোরে ঢাকা মেডিকেলে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান তিনি আর বেঁচে নেই।

এই ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে। ঘটনাস্থলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। তবে যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

মৃণাল কান্তি দাসের এক সমর্থককে গুলি করে হত্যা

আপডেট সময় ১০:৪৩:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জানুয়ারী ২০২৪

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনে নির্বাচনি প্রচারের শেষের দিকে ডালিম সরকার (৩০) নামে নৌকার প্রার্থী মৃণাল কান্তি দাসের এক সমর্থককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। পিটিয়ে আহত করা হয়েছে আরেক সমর্থক সোহেলকে।

অভিযোগ উঠেছে কাঁচি প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ ফয়সালের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে সদর উপজেলার মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের মুন্সীকান্দি গ্রামের নৌকার ক্যাম্পে গুলিবিদ্ধ হলে বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

নিহত ডালিম মুন্সীকান্দি গ্রামের নুর হোসেন সরকারের ছেলে। তার তিন বছরের এক মেয়ে ও দুই মাসের এক ছেলে রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, কাঁচি প্রতীকের প্রার্থী হাজি মো. ফয়সাল বিপ্লবের সমর্থক মোল্লা কান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মো. রিপন পাটোয়ারীর ভাই শিপন পাটোয়ারী ও সোহাগের নেতৃত্বে ১০-১২ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল নৌকার ক্যাম্পের সামনে এসে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এতে ডালিম গুলিবিদ্ধ হন। তারা সোহেলকেও মারধর করে আহত করেন৷ পরে গুলিবিদ্ধ গুরুতর আহত ডালিমকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডালিমকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পুরো ইউনিয়নজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

হামলায় আহত সোহেল বলেন, আমরা নৌকার ক্যাম্পে অবস্থান করছিলাম। হঠাৎ করে রাত সাড়ে ১২টার দিকে শিপন পাটোয়ারীর নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী দল ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে ডালিমকে গুরুতর আহত করে। এ সময় আমরা ডালিমকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে আমাকে পিটিয়ে আহত করে।

ডালিমের মামাশ্বশুর শাহিন মিয়া জানান, বুকের বাম পাশে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় প্রথমে ডালিমকে মুন্সীগঞ্জের জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভোরে ঢাকা মেডিকেলে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান তিনি আর বেঁচে নেই।

এই ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. আমিনুল ইসলাম জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে। ঘটনাস্থলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। তবে যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছে।