ঢাকা ০৭:৩৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
পুলিশ ও প্রক্টরের সামনেই ৫ ঘণ্টা ধরে এই সংঘর্ষ চলছে

আবারও ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ: তিন পুলিশসহ আহত ৩৫

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৮:৪৮:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ১০৫ বার পড়া হয়েছে

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শাখা ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। বগিভিত্তিক গ্রুপ সিএফসি ও সিক্সটি নাইনের দিনভর উত্তেজনার পর সন্ধ্যায় তা তুমুল সংঘর্ষে রূপ নিয়েছে।

এতে তিনজন পুলিশসহ উভয় গ্রুপের অন্তত ৩৫জন আহত হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের দায়িত্বরত চিকিৎসক। আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় চার শিক্ষার্থীকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তাদের পরিচয় এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর থেকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত এখনো সংঘর্ষ চলছে। পুলিশ ও প্রক্টরের সামনেই ৫ ঘণ্টা ধরে এই সংঘর্ষ চলছে। কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ব্যর্থ হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. নুরুল আজিম সিকদার বলেন, আমাদের কাছে অতিরিক্ত পুলিশ নেই। আমরা ওসির সাথে যোগাযোগ করছি। র‍্যাব মোতায়েন করার জন্য আমরা জোর চেষ্টা চালাচ্ছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

পুলিশ ও প্রক্টরের সামনেই ৫ ঘণ্টা ধরে এই সংঘর্ষ চলছে

আবারও ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ: তিন পুলিশসহ আহত ৩৫

আপডেট সময় ০৮:৪৮:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শাখা ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। বগিভিত্তিক গ্রুপ সিএফসি ও সিক্সটি নাইনের দিনভর উত্তেজনার পর সন্ধ্যায় তা তুমুল সংঘর্ষে রূপ নিয়েছে।

এতে তিনজন পুলিশসহ উভয় গ্রুপের অন্তত ৩৫জন আহত হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের দায়িত্বরত চিকিৎসক। আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় চার শিক্ষার্থীকে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তাদের পরিচয় এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর থেকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত এখনো সংঘর্ষ চলছে। পুলিশ ও প্রক্টরের সামনেই ৫ ঘণ্টা ধরে এই সংঘর্ষ চলছে। কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ব্যর্থ হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. নুরুল আজিম সিকদার বলেন, আমাদের কাছে অতিরিক্ত পুলিশ নেই। আমরা ওসির সাথে যোগাযোগ করছি। র‍্যাব মোতায়েন করার জন্য আমরা জোর চেষ্টা চালাচ্ছি।