ঢাকা ০৯:৪৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বেইলি রোডে রেস্টুরেন্টে আগুন

আগুনে পুড়ে মরলেন ভিকারুননিসার শিক্ষিকা শাহনাজ

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৮:০৯:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪
  • / ৭২ বার পড়া হয়েছে

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক শাহনাজ পারভীন

রাজধানীর বেইলি রোডে বহুতল ভবনে লাগা ভয়াবহ আগুনে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি। মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৪ জনে। অগ্নিকাণ্ডে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক শাহনাজ পারভীন মারা গেছেন বলে জানা গেছে

শুক্রবার (১ মার্চ) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কথা হয় রিফাত নামের এক যুবকের সঙ্গে। তিনি শাহনাজ পারভীনের মরদেহ শনাক্ত করেছেন।

রিফাত জানান, তার ছোট বোন ভিকারুননিসা নূন স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়ছে। তার বোন ম্যামকে চিনতে পেরেছে। শাহনাজ পারভীন ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক। তার মরদেহ ঢামেকের মর্গে আছে।

জানা গেছে, অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনায় অন্তত ৭৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয় আরও ৪২ জনকে। মারা গেছেন ৪৪ জন। ঢামেক হাসপাতালে ৩০, শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ১০ এবং রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে একজন মারা গেছেন। এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় ৩টি মরদেহ।

ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া সেল থেকে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টা ৫০ মিনিটে আগুন লাগার খবর পান তারা। প্রথম ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ৯টা ৫৬ মিনিটে। পরে আগুনের ভয়াবহতা ছড়িয়ে পড়লে আরও ১২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে পুলিশ, আনসার, র‌্যাব ও এনএসআই। ১৩টি ইউনিটের ২ ঘণ্টার চেষ্টায় রাত ১১টা ৫০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
 
ভবনটিতে পিৎজা ইন, স্ট্রিট ওভেন, খানাসসহ আরও রেস্টরেন্ট রয়েছে। এছাড়া ইলিয়েন, ক্লোজেস্ট ক্লাউডসহ জনপ্রিয় বিপণিবিতানও রয়েছে। 

নিউজটি শেয়ার করুন

বেইলি রোডে রেস্টুরেন্টে আগুন

আগুনে পুড়ে মরলেন ভিকারুননিসার শিক্ষিকা শাহনাজ

আপডেট সময় ০৮:০৯:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪

রাজধানীর বেইলি রোডে বহুতল ভবনে লাগা ভয়াবহ আগুনে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের সারি। মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৪ জনে। অগ্নিকাণ্ডে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক শাহনাজ পারভীন মারা গেছেন বলে জানা গেছে

শুক্রবার (১ মার্চ) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কথা হয় রিফাত নামের এক যুবকের সঙ্গে। তিনি শাহনাজ পারভীনের মরদেহ শনাক্ত করেছেন।

রিফাত জানান, তার ছোট বোন ভিকারুননিসা নূন স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়ছে। তার বোন ম্যামকে চিনতে পেরেছে। শাহনাজ পারভীন ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক। তার মরদেহ ঢামেকের মর্গে আছে।

জানা গেছে, অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনায় অন্তত ৭৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয় আরও ৪২ জনকে। মারা গেছেন ৪৪ জন। ঢামেক হাসপাতালে ৩০, শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ১০ এবং রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে একজন মারা গেছেন। এ ছাড়া ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয় ৩টি মরদেহ।

ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া সেল থেকে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টা ৫০ মিনিটে আগুন লাগার খবর পান তারা। প্রথম ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ৯টা ৫৬ মিনিটে। পরে আগুনের ভয়াবহতা ছড়িয়ে পড়লে আরও ১২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে পুলিশ, আনসার, র‌্যাব ও এনএসআই। ১৩টি ইউনিটের ২ ঘণ্টার চেষ্টায় রাত ১১টা ৫০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
 
ভবনটিতে পিৎজা ইন, স্ট্রিট ওভেন, খানাসসহ আরও রেস্টরেন্ট রয়েছে। এছাড়া ইলিয়েন, ক্লোজেস্ট ক্লাউডসহ জনপ্রিয় বিপণিবিতানও রয়েছে।