ঢাকা ০৭:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
কেঁদে বললেন

বর্ণবাদের কারণে ফুটবল খেলার ইচ্ছা কমে যাচ্ছে- ভিনিসিয়ুস

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৪:৪৭:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
  • / ৭৮ বার পড়া হয়েছে

সংবাদ সম্মেলনে এসে কেঁদেই ফেললেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। ভেজা চোখে বললেন, স্পেনে তাঁকে যেভাবে একের পর এক বর্ণবাদী আচরণের শিকার হতে হচ্ছে, তাতে ফুটবল খেলার ইচ্ছাটাই ধীরে ধীরে মরে যাচ্ছে। রিয়াল মাদ্রিদের ব্রাজিলিয়ান তারকা ভিনিসিয়ুস কয়েক বছর ধরেই প্রতিপক্ষ দলের সমর্থকদের বর্ণবাদী আচরণের শিকার হচ্ছেন। এর মধ্যে গত মে মাসে ভ্যালেন্সিয়ায় তাঁর বর্ণবাদী আচরণের শিকার হওয়ার ঘটনাটা তোলপাড় ফেলেছে বিশ্বব্যাপী।

রিয়ালের মাঠে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে আগামীকাল বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ৩০ মিনিটে প্রীতি ম্যাচে স্পেনের মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার করতে ‘ওয়ান স্কিন’ স্লোগানে এই ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল। তার সংবাদ সম্মেলনে এসে ভিনিসিয়ুস বলেছেন, ‘অনেক দিন ধরেই এটার (বর্ণবাদ) মুখোমুখি হচ্ছি। প্রতিবারই আরও বেশি দুঃখ লাগে। প্রতিবারই খেলার ইচ্ছাটা আরেকটু মরে যায়।’

স্পেনে বিভিন্ন স্টেডিয়ামে বর্ণবাদী আচরণের শিকার হয়েছেন ভিনিসিয়ুস। এ ব্যাপারে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পরই কান্না চেপে রাখতে পারেননি ২৩ বছর বয়সী ব্রাজিল তারকা। তবে সংবাদ সম্মেলনে শেষ দিকে ভিনিসিয়ুস জানিয়েছেন, তিনি বর্ণবাদী আচরণ এড়াতে স্পেন ছেড়ে অন্য কোনো দেশে গিয়ে ফুটবল খেলবেন না, ‘বর্ণবাদীরা যা খুশি করতে পারে। আমি বিশ্বের সেরা ক্লাবেই থাকব, যত বেশি সম্ভব গোল করব, সেটা তারা (বর্ণবাদী) যেন দেখে।’

ভিনিসিয়ুস জানিয়েছেন, তিনি শুধু নিজের ফুটবল ক্যারিয়ারেই মনোযোগী হতে চান, ‘ফুটবল খেলাটা গুরুত্বপূর্ণ। তবে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে লড়াই আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমি চাই, কৃষ্ণাঙ্গরা স্বাভাবিক জীবনযাপন করুক, সেটা নিশ্চিত হলে ক্লাবের হয়ে শুধু খেলাতেই মনোযোগ দিতে পারব।’ এর আগে স্পেনের ডিফেন্ডার এবং রিয়ালে ভিনিসিয়ুসের সতীর্থ দানি কারবাহল বলেছেন, তাঁর দেশ বর্ণবাদী দেশ নয়।

ভিনিসিয়ুস এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি নিশ্চিত স্পেন বর্ণবাদী দেশ নয়, তবে এখানে (স্পেনে) প্রচুর বর্ণবাদী আছে এবং অনেককেই স্টেডিয়ামে দেখা যায়। প্রথমবার এ নিয়ে অভিযোগের পর থেকে এটা যেন বেড়েই চলছে। আমার গায়ের রং নিয়ে তারা অপমানসূচক কথা বলে, যেন মাঠে ভালো খেলতে না পারি। তারা অন্য যা খুশি আমাকে বলতে পারে, আমি কিছুই বলব না। আশা করি কী ঘটতে পারে, এসব নিয়ে ভাবনাচিন্তা ছাড়াই স্টেডিয়ামে যেতে পারব।’

চলতি মাসের শুরুতে আতলেতিকো মাদ্রিদের সমর্থকদের বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ করেছিলেন ভিনিসিয়ুস। গত নভেম্বরে রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলত্তি বলেছেন, ভিনিসিয়ুস ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে’ স্পেনে বর্ণবাদী আচরণে ‘অভ্যস্ত হয়ে উঠেছে।’ গত শুক্রবার কলম্বিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলে হেরেছে স্পেন। গত পরশু ইংল্যান্ডকে প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলে হারায় ব্রাজিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

কেঁদে বললেন

বর্ণবাদের কারণে ফুটবল খেলার ইচ্ছা কমে যাচ্ছে- ভিনিসিয়ুস

আপডেট সময় ০৪:৪৭:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

সংবাদ সম্মেলনে এসে কেঁদেই ফেললেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। ভেজা চোখে বললেন, স্পেনে তাঁকে যেভাবে একের পর এক বর্ণবাদী আচরণের শিকার হতে হচ্ছে, তাতে ফুটবল খেলার ইচ্ছাটাই ধীরে ধীরে মরে যাচ্ছে। রিয়াল মাদ্রিদের ব্রাজিলিয়ান তারকা ভিনিসিয়ুস কয়েক বছর ধরেই প্রতিপক্ষ দলের সমর্থকদের বর্ণবাদী আচরণের শিকার হচ্ছেন। এর মধ্যে গত মে মাসে ভ্যালেন্সিয়ায় তাঁর বর্ণবাদী আচরণের শিকার হওয়ার ঘটনাটা তোলপাড় ফেলেছে বিশ্বব্যাপী।

রিয়ালের মাঠে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে আগামীকাল বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ৩০ মিনিটে প্রীতি ম্যাচে স্পেনের মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার করতে ‘ওয়ান স্কিন’ স্লোগানে এই ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল। তার সংবাদ সম্মেলনে এসে ভিনিসিয়ুস বলেছেন, ‘অনেক দিন ধরেই এটার (বর্ণবাদ) মুখোমুখি হচ্ছি। প্রতিবারই আরও বেশি দুঃখ লাগে। প্রতিবারই খেলার ইচ্ছাটা আরেকটু মরে যায়।’

স্পেনে বিভিন্ন স্টেডিয়ামে বর্ণবাদী আচরণের শিকার হয়েছেন ভিনিসিয়ুস। এ ব্যাপারে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পরই কান্না চেপে রাখতে পারেননি ২৩ বছর বয়সী ব্রাজিল তারকা। তবে সংবাদ সম্মেলনে শেষ দিকে ভিনিসিয়ুস জানিয়েছেন, তিনি বর্ণবাদী আচরণ এড়াতে স্পেন ছেড়ে অন্য কোনো দেশে গিয়ে ফুটবল খেলবেন না, ‘বর্ণবাদীরা যা খুশি করতে পারে। আমি বিশ্বের সেরা ক্লাবেই থাকব, যত বেশি সম্ভব গোল করব, সেটা তারা (বর্ণবাদী) যেন দেখে।’

ভিনিসিয়ুস জানিয়েছেন, তিনি শুধু নিজের ফুটবল ক্যারিয়ারেই মনোযোগী হতে চান, ‘ফুটবল খেলাটা গুরুত্বপূর্ণ। তবে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে লড়াই আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমি চাই, কৃষ্ণাঙ্গরা স্বাভাবিক জীবনযাপন করুক, সেটা নিশ্চিত হলে ক্লাবের হয়ে শুধু খেলাতেই মনোযোগ দিতে পারব।’ এর আগে স্পেনের ডিফেন্ডার এবং রিয়ালে ভিনিসিয়ুসের সতীর্থ দানি কারবাহল বলেছেন, তাঁর দেশ বর্ণবাদী দেশ নয়।

ভিনিসিয়ুস এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি নিশ্চিত স্পেন বর্ণবাদী দেশ নয়, তবে এখানে (স্পেনে) প্রচুর বর্ণবাদী আছে এবং অনেককেই স্টেডিয়ামে দেখা যায়। প্রথমবার এ নিয়ে অভিযোগের পর থেকে এটা যেন বেড়েই চলছে। আমার গায়ের রং নিয়ে তারা অপমানসূচক কথা বলে, যেন মাঠে ভালো খেলতে না পারি। তারা অন্য যা খুশি আমাকে বলতে পারে, আমি কিছুই বলব না। আশা করি কী ঘটতে পারে, এসব নিয়ে ভাবনাচিন্তা ছাড়াই স্টেডিয়ামে যেতে পারব।’

চলতি মাসের শুরুতে আতলেতিকো মাদ্রিদের সমর্থকদের বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ করেছিলেন ভিনিসিয়ুস। গত নভেম্বরে রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলত্তি বলেছেন, ভিনিসিয়ুস ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে’ স্পেনে বর্ণবাদী আচরণে ‘অভ্যস্ত হয়ে উঠেছে।’ গত শুক্রবার কলম্বিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলে হেরেছে স্পেন। গত পরশু ইংল্যান্ডকে প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলে হারায় ব্রাজিল।