ঢাকা ০৭:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সারাদেশব্যাপী ছাত্রশিবিরের বদর দিবস পালিত

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:০৫:৫১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪
  • / ১৭২৭ বার পড়া হয়েছে

ছবি-বক্তব্য রাখছেন শিবির সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম

আলোচনা সভা, সিম্পোজিয়াম, কুরআন বিতরণসহ বিভিন্ন আয়োজনে সারা দেশে বদর দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন মহানগর, জেলা শাখাসমূহ দিবসটি উপলক্ষ্যে কেন্দ্র ঘোষিত নানা কর্মসূচি পালন করে।

ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে কেন্দ্রীয় সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, সত্য এবং মিথ্যার পার্থক্যকারী ময়দানের নাম বদর। ইসলামের অগ্রযাত্রা এ ময়দান থেকে শুরু হয়েছিল। বিশ্ববাসীকে ইসলামী শক্তির বার্তা দেওয়া হয়েছিল বদর প্রান্তর থেকে। সংখ্যা নয় বরং আল্লাহর ওপর অবিচল ঈমানী দৃঢ়তা ও নৈতিক মানে উত্তীর্ণ হওয়ার কারণে সেদিন দ্বীনের মুজাহিদরা সরাসরি আল্লাহর সাহায্য পেয়েছিলেন। আজও দ্বীনের বিজয় করতে হলে ইসলামী আন্দোলনের জনশক্তিদের সেই ঈমানী দৃঢ়তা, সাহসীকতা, আনুগত্য ও নৈতিক মানে উন্নিত হতে হবে। আল্লাহর প্রতি অবিচল আস্থা ও বিশ্বাস সুদৃঢ় করে বাতিলের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রেখে বিজয়ের দিকে অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হবে।

ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগর উত্তর শাখা। কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মু. সালাহউদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও মহানগর উত্তরের সেক্রেটারি মীর শিহাব উদ্দীন সঞ্চালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন শাখা সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম শাকিল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শিবির সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, বদরের সেই দুঃসাহসিক সংগ্রামের লক্ষ্য ছিল সার্বিকভাবে ইসলামকে বিজয়ী করা। এ বিজয় আমাদের শিখিয়েছে লড়াই, সংগ্রাম ও জিহাদের পথ। কিন্তু পরিকল্পিতভাবে জিহাদকে বিকৃতভাবে প্রচারে এবং এর অপ্রত্যাশিত প্রভাবই মুসলিম উম্মাহর পিছিয়ে থাকার অন্যতম কারন। অথচ মুসলমানদের জন্য জিহাদ একটি মৌলিক ইবাদত এবং মুক্তির পথ। জিহাদ নিয়ে হীনমন্যতা ত্যাগ করতে হবে। শাহাদাতের তীব্র আকাঙ্খা নিয়ে ময়দানে দ্বীন প্রতিষ্ঠার কাজ করে যেতে হবে। ইসলামী আন্দোলনের কর্মীদের আল্লাহর ভয় ছাড়া আর কোন ভয় থাকবে না। বদর প্রান্তরের দ্বীনের সৈনিকদের গুণ অর্জন করতে পারলে মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের বিজয় দিবেন ইনশাআল্লাহ।

প্রসঙ্গত, ১৭ রমজান ঐতিহাসিক বদর দিবস পালন উপলক্ষ্যে ঢাকা মহানগর উত্তর, ঢাকা মহানগর পূর্ব, ঢাকা মহানগর পশ্চিম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ, চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ, সিলেট, কুমিল্লা, রংপুর মহানগর এবং বিভিন্ন শহর, জেলা ও থানা শাখায় বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

সারাদেশব্যাপী ছাত্রশিবিরের বদর দিবস পালিত

আপডেট সময় ০৫:০৫:৫১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪

আলোচনা সভা, সিম্পোজিয়াম, কুরআন বিতরণসহ বিভিন্ন আয়োজনে সারা দেশে বদর দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন মহানগর, জেলা শাখাসমূহ দিবসটি উপলক্ষ্যে কেন্দ্র ঘোষিত নানা কর্মসূচি পালন করে।

ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে কেন্দ্রীয় সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, সত্য এবং মিথ্যার পার্থক্যকারী ময়দানের নাম বদর। ইসলামের অগ্রযাত্রা এ ময়দান থেকে শুরু হয়েছিল। বিশ্ববাসীকে ইসলামী শক্তির বার্তা দেওয়া হয়েছিল বদর প্রান্তর থেকে। সংখ্যা নয় বরং আল্লাহর ওপর অবিচল ঈমানী দৃঢ়তা ও নৈতিক মানে উত্তীর্ণ হওয়ার কারণে সেদিন দ্বীনের মুজাহিদরা সরাসরি আল্লাহর সাহায্য পেয়েছিলেন। আজও দ্বীনের বিজয় করতে হলে ইসলামী আন্দোলনের জনশক্তিদের সেই ঈমানী দৃঢ়তা, সাহসীকতা, আনুগত্য ও নৈতিক মানে উন্নিত হতে হবে। আল্লাহর প্রতি অবিচল আস্থা ও বিশ্বাস সুদৃঢ় করে বাতিলের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রেখে বিজয়ের দিকে অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হবে।

ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগর উত্তর শাখা। কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মু. সালাহউদ্দিন এর সভাপতিত্বে ও মহানগর উত্তরের সেক্রেটারি মীর শিহাব উদ্দীন সঞ্চালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন শাখা সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম শাকিল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শিবির সভাপতি মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, বদরের সেই দুঃসাহসিক সংগ্রামের লক্ষ্য ছিল সার্বিকভাবে ইসলামকে বিজয়ী করা। এ বিজয় আমাদের শিখিয়েছে লড়াই, সংগ্রাম ও জিহাদের পথ। কিন্তু পরিকল্পিতভাবে জিহাদকে বিকৃতভাবে প্রচারে এবং এর অপ্রত্যাশিত প্রভাবই মুসলিম উম্মাহর পিছিয়ে থাকার অন্যতম কারন। অথচ মুসলমানদের জন্য জিহাদ একটি মৌলিক ইবাদত এবং মুক্তির পথ। জিহাদ নিয়ে হীনমন্যতা ত্যাগ করতে হবে। শাহাদাতের তীব্র আকাঙ্খা নিয়ে ময়দানে দ্বীন প্রতিষ্ঠার কাজ করে যেতে হবে। ইসলামী আন্দোলনের কর্মীদের আল্লাহর ভয় ছাড়া আর কোন ভয় থাকবে না। বদর প্রান্তরের দ্বীনের সৈনিকদের গুণ অর্জন করতে পারলে মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের বিজয় দিবেন ইনশাআল্লাহ।

প্রসঙ্গত, ১৭ রমজান ঐতিহাসিক বদর দিবস পালন উপলক্ষ্যে ঢাকা মহানগর উত্তর, ঢাকা মহানগর পূর্ব, ঢাকা মহানগর পশ্চিম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ, চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ, সিলেট, কুমিল্লা, রংপুর মহানগর এবং বিভিন্ন শহর, জেলা ও থানা শাখায় বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।