ঢাকা ০১:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরগুলোতে কখন কোথায় ঈদের জামাত

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ১০:৩৫:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪
  • / ১৮৯ বার পড়া হয়েছে

বরাবরের মতো এবারও রাজধানীতে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে ৮টায়। এছাড়া বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে হবে ঈদের পাঁচটি জামাত।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব মাওলানা মোহাম্মদ রুহুল আমিন ইমাম ও মুয়াজ্জিন মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান ক্বারী হিসেবে এই জামাতে দায়িত্ব পালন করবেন।

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদসহ সব শ্রেণি পেশার মানুষ এ জামাতে অংশ নেবেন।

মঙ্গলবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা না যাওয়ায় বাংলাদেশে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার।

প্রধান ঈদ জামাতের জন্য ইতোমধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ মাঠ। সেখানে একসঙ্গে প্রায় ৩৫ হাজার মানুষের নামাজ পড়ার ব্যবস্থা করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

প্রধান ঈদ জামাত ঘিরে নিরাপত্তার বন্দোবস্তুও করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা নিরাপত্তার আয়োজন পর্য়বেক্ষণ করে আশ্বস্ত করেছেন।

তবে আবহাওয়া প্রতিকূল হলে বা অন্য কোনো অনিবার্য কারণে ঈদগাহের জামাত না হলে সকাল ৯টায় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত হবে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, প্রতিবছরের মতো এবারও ঈদের দিন পাঁচটি জামাত হবে ঢাকায় বায়তুল মোকাররমে।

প্রতি বছর দেশের সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের আয়োজন হয় কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া মাঠে। এবার সেখানে হবে ঈদুল ফিতরের ১৯৭তম জামাত। সকাল ১০টায় এ জামাতে ইমামতি করবেন বাংলাদেশ ইসলাহুল মুসলেমিন পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

ঈদের এই জামাতে যাতায়াতের সুবিধার জন্য বরাবরের মতোই শোলাকিয়া স্পেশাল নামে দুটি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।

সবচেয়ে বড় ঈদ জামাত আয়োজনে কয়েক বছর ধরে শোলাকিয়ার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে যাচ্ছে দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় ময়দান। আয়োজকদের দাবি, প্রায় ২২ একর আয়তনের এ মাঠে পাঁচ থেকে ছয় লাখ মানুষ সেখানে একসঙ্গে নামাজ পড়তে পারেন। সকাল ৯টায় এ ময়দানে ঈদের জামাতে ইমামতি করবেন মাওলানা শামসুল হক কাসেমী।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এবার ঈদুল ফিতরের দিনটি কেটে যাবে রোদ-গরমে। বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হলেও তাতে খুব একটা স্বস্তি মিলবে না।

জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাতে অংশ নিতে যাওয়ার সময় জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কিছু সঙ্গে না নিতে অনুরোধ করা হয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে।

ঢাকা 
ঈদের দিন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে বরাবরের মতই পাঁচটি জামাতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, সকাল ৭টা, সকাল ৮টা, সকাল ৯টা এবং সকাল ১০টায় যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ জামাত হবে। পঞ্চম জামাত হবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে সকাল ৮টায় এবং ৯টায় দুটি জামাত হবে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হল মসজিদ এবং ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হলে সকাল ৮টায় দুটি ঈদ জামাত হবে।

এছাড়া সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে জমঈয়তে আহলে হাদিসের প্রধান জামাত হবে। আর আজিমপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকার বায়তুন নূর জামে মসজিদে সকাল ৮টায় হবে ঈদ জামাত।

কামরাঙ্গীরচর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে সকাল সাড়ে ৭টায় ও সকাল সাড়ে ৮টায় দুটি জামাত হবে। কামরাঙ্গীরচর হাফেজ্জী হুজুর মসজিদ মাদরাসায় একটি জামাত হবে সকাল ৮টায়।

কাজীপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তিনটি জামাত হবে সকাল ৭টা, ৮টা ও ৮টা ৪৫ মিনিটে। দারুস সালাম মীর বাড়ি আদি (মাদবর বাড়ি) জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টা ও সকাল ৮টায় দুটি জামাত হবে।

পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজার মিয়া সাহেবের ময়দান খানকা শরীফ জামে মসজিদে সকাল ৭টায়, লক্ষ্মীবাজার নূরানি জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৪৫ ও সকাল সাড়ে ৮টায় দুটি জামাত হবে।

খিলগাঁও চৌধুরীপাড়া পল্লীমা সংসদ প্রাঙ্গণে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে হবে ঈদ জামাত। সায়েদাবাদ চিশতিয়া দরবার শরফয় জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায় ঈদ জামাত হবে।

ঢাকায় এবার ১৮৪টি ঈদগাহে ও এক হাজার ৪৮৮টি মসজিদে ঈদের জামাত হবে।

চট্টগ্রাম 

চট্টগ্রামের সকাল ৮টায় ঈদের প্রধান জামাত হবে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ প্রাঙ্গণে। ইমামতি করবেন মসজিদের খতিব সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আল কাদেরী।

সেখানেই সকাল সাড়ে ৮টায় আরেকটি ঈদ জামাত হবে। এছাড়া লালদীঘি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন শাহী জামে মসজিদে ঈদ জামাত হবে সকাল ৮টায়।

জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় কেন্দ্রীয় ঈদ জামাত কমিটির আয়োজনে সকাল ৯টায় এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেশিয়ামে ঈদের জামাত হবে।

এছাড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে সকাল ৮টায় আরও আটটি মসজিদে ঈদ জামাত হবে। এগুলো- হযরত শেখ ফরিদ (র.) চশমা ঈদগাহ মসজিদ, সুগন্ধা আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, চকবাজার সিটি করপোরেশন জামে মসজিদ, জহুর হকার্স মার্কেট জামে মসজিদ, দক্ষিণ খুলশী (ভিআইপি) আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, আরেফীন নগর কেন্দ্রীয় কবরস্থান জামে মসজিদ, সাগরিকা গরু বাজার জামে মসজিদ ও মা আয়েশা সিদ্দিকী চসিক জামে মসজিদ (সাগরিকা জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম সংলগ্ন)।

এছাড়া নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে একটি করে ঈদ জামাত হবে।

রাজশাহী 

রাজশাহীতে এবার ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় শাহ মখদুম (রহ.) কেন্দ্রীয় ঈদগাহে। তবে বৃষ্টি হলে বা আবহাওয়া প্রতিকূল থাকলে একই সময় ঈদের প্রধান জামাত হবে শাহ মখদুম (রহ.) দরগা জামে মসজিদে। নামাজে আসা মানুষের সংখ্যা বেশি হলে ৪৫ মিনিটের ব্যবধানে দরগা মসজিদে পর পর ঈদের দ্বিতীয় ও তৃতীয় জামাত হবে।

রাজশাহীতে ঈদের দ্বিতীয় প্রধান জামাত হবে সকাল সাড়ে ৭টায় মহানগর ঈদগাহে (টিকাপাড়া)। সেখানে সকাল ৮টায় আরেকটি জামাত হবে। বৃষ্টি হলে একই সময়ে পাশের টিকাপাড়া মোহাম্মপুর জামে মসজিদ কমপ্লেক্সে ঈদের জামাত হবে।

এছাড়া সকাল ৮টায় মহানগরীর তৃতীয় বড় ঈদ জামাত হবে বড় মসজিদ সংলগ্ন সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৮টায় এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় জামে মসজিদে সকাল ৭টায় জামাত হবে।

খুলনা 

খুলনায় ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় সার্কিট হাউস ময়দানে। তবে আবহাওয়া প্রতিকূল থাকলে প্রথম ও প্রধান জামাত সকাল ৮টায় টাউন জামে মসজিদে হবে।

এছাড়া আলিয়া মাদ্রাসার মডেল মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে সকাল সাড়ে ৭টায়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত হবে।

খুলনা সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় ও ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে হবে পৃথক ঈদের জামাত।

বরিশাল 

বরিশাল নগরীতে ঈদের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় বান্দ রোড হেমায়েতউদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। দ্বিতীয় প্রধান জামাত হবে নগরীর আমতলা মোড়ে বরিশাল মডেল মসজিদে। সেখানেও জামাত হবে সকাল ৮টায়।

জেলার সর্ববৃহত জামাত হবে সকাল ৯টায় সদর উপজেলার চরমোনাই ইউনিয়নের চরমেনাই পীরের দরবারে। দ্বিতীয় বৃহৎ ঈদের জামাত হবে সাড়ে ৮টায় উজিরপুরের গুঠিয়ার নান্দনিক বায়তুল আমান মসজিদ কমপ্লেক্সে।

সদর রোডের বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদে সকাল ৮টায় প্রথম এবং সকাল ৯টায় দ্বিতীয় জামাত হবে। নগরীর গির্জামহল্লার জামে কসাই মসজিদে সকাল ৭টায় প্রথম ও ৯টায় দ্বিতীয় জামাত হবে।

বরিশাল মহানগর ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা কাজী আব্দুল মান্নান বলেন, “ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য কোনো সময় বেধে দেওয়া হয়নি। তবে আমরা নগরীতে সকাল ৮টা থেকে ১০টার মধ্যে সব জামাত শেষ করতে চাই।”

সিলেট 

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শাহী ঈদগাহে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায়। একই সময়ে সিলেট সরকারি আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে হবে ঈদের জামাত।

বন্দরবাজারে কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে ঈদের তিনটি জামাত হবে সকাল সাড়ে ৭টা, সকাল সাড়ে ৮টা এবং সকাল সাড়ে ৯টায়।

রংপুর 

রংপুরে সকাল ৮টায় কালেক্টরেট ঈদগাহে হবে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত। আবহাওয়া খারাপ হলে ঈদের প্রধান জামাত হবে রংপুর জেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ৮টায়। সেখানে সকাল ৯টায় হবে দ্বিতীয় জামাত।

এছাড়া মুন্সিপাড়া ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায়, হযরত মাওলানা কেরামত আলী (রহ.) মাজার সংলগ্ন কেরামতিয়া মসজিদে সকাল সাড়ে ৯টায়, মণ্ডল পাড়া বড় ঈদগাহ ও দামোদরপুর বড় ময়দানে সাড়ে ৯টায়, মিঠাপুকুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ৯টায়, বদরগঞ্জ চান্দামাড়ি কারামতিয়া ঈদগাহে সকাল ১০টায়, পীরগাছা জেএন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, কাউনিয়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, তারাগঞ্জ চৌপথি ঈদগাহ, পীরগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, বদরগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ও সদর উপজেলা পরিষদ ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের জামাত হবে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায়, গঙ্গাচড়ার পাইকান বড় জুম্মা মসজিদ মাঠে সকাল ৯টায় হবে ঈদের জামাত। ধাপ স্টাফ কোয়াটার জামে মসজিদ মাঠে এবং বুড়িরহাট কেন্দ্রীয় ঈদগাহে সকাল ৯টায় ঈদ জামাতের আয়োজন করা হয়েছে। বুড়িরহাট  মাঠ ঈদের জামাত হবে সকাল ৯টায় ।

ময়মনসিংহ 

ময়মনসিংহ জেলার এবার প্রায় আড়াই হাজার স্থানে ঈদুল ফিতরের জামাত হবে। প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় নগরীর আঞ্জুমান ঈদগাহ মাঠে। একই স্থানে দ্বিতীয় জামাত হবে সকাল পৌনে ৯টায়।

এছাড়া ঐতিহ্যবাহী বড় মসজিদে ঈদের জামাত হবে সকাল সাড়ে ৯টায়। আকুয়া মাদানীনূর মার্কাজ মসজিদ মাঠে সকাল সোয়া ৭টায়, ময়মনসিংহ মার্কাজ মসজিদে সকাল ৮টায়, গোপাল নগর ভাটি পাড়া ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায়, গাঙ্গিনারপাড় জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ঈদগাহ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায়, বলাশপুর ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায়, সুহিলা বুধ বাড়িয়া ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায়, জেলাখানা মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত হবে।

এছাড়া জেলার ৭৩টি স্থানে বড় পরিসরে ঈদের জামাত হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরগুলোতে কখন কোথায় ঈদের জামাত

আপডেট সময় ১০:৩৫:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪

বরাবরের মতো এবারও রাজধানীতে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে সকাল সাড়ে ৮টায়। এছাড়া বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে হবে ঈদের পাঁচটি জামাত।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব মাওলানা মোহাম্মদ রুহুল আমিন ইমাম ও মুয়াজ্জিন মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান ক্বারী হিসেবে এই জামাতে দায়িত্ব পালন করবেন।

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য, রাজনীতিবিদসহ সব শ্রেণি পেশার মানুষ এ জামাতে অংশ নেবেন।

মঙ্গলবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা না যাওয়ায় বাংলাদেশে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার।

প্রধান ঈদ জামাতের জন্য ইতোমধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে হাইকোর্ট সংলগ্ন জাতীয় ঈদগাহ মাঠ। সেখানে একসঙ্গে প্রায় ৩৫ হাজার মানুষের নামাজ পড়ার ব্যবস্থা করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

প্রধান ঈদ জামাত ঘিরে নিরাপত্তার বন্দোবস্তুও করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা নিরাপত্তার আয়োজন পর্য়বেক্ষণ করে আশ্বস্ত করেছেন।

তবে আবহাওয়া প্রতিকূল হলে বা অন্য কোনো অনিবার্য কারণে ঈদগাহের জামাত না হলে সকাল ৯টায় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত হবে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, প্রতিবছরের মতো এবারও ঈদের দিন পাঁচটি জামাত হবে ঢাকায় বায়তুল মোকাররমে।

প্রতি বছর দেশের সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের আয়োজন হয় কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া মাঠে। এবার সেখানে হবে ঈদুল ফিতরের ১৯৭তম জামাত। সকাল ১০টায় এ জামাতে ইমামতি করবেন বাংলাদেশ ইসলাহুল মুসলেমিন পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

ঈদের এই জামাতে যাতায়াতের সুবিধার জন্য বরাবরের মতোই শোলাকিয়া স্পেশাল নামে দুটি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।

সবচেয়ে বড় ঈদ জামাত আয়োজনে কয়েক বছর ধরে শোলাকিয়ার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে যাচ্ছে দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় ময়দান। আয়োজকদের দাবি, প্রায় ২২ একর আয়তনের এ মাঠে পাঁচ থেকে ছয় লাখ মানুষ সেখানে একসঙ্গে নামাজ পড়তে পারেন। সকাল ৯টায় এ ময়দানে ঈদের জামাতে ইমামতি করবেন মাওলানা শামসুল হক কাসেমী।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এবার ঈদুল ফিতরের দিনটি কেটে যাবে রোদ-গরমে। বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হলেও তাতে খুব একটা স্বস্তি মিলবে না।

জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাতে অংশ নিতে যাওয়ার সময় জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কিছু সঙ্গে না নিতে অনুরোধ করা হয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে।

ঢাকা 
ঈদের দিন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে বরাবরের মতই পাঁচটি জামাতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, সকাল ৭টা, সকাল ৮টা, সকাল ৯টা এবং সকাল ১০টায় যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ জামাত হবে। পঞ্চম জামাত হবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে সকাল ৮টায় এবং ৯টায় দুটি জামাত হবে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হল মসজিদ এবং ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হলে সকাল ৮টায় দুটি ঈদ জামাত হবে।

এছাড়া সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে জমঈয়তে আহলে হাদিসের প্রধান জামাত হবে। আর আজিমপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকার বায়তুন নূর জামে মসজিদে সকাল ৮টায় হবে ঈদ জামাত।

কামরাঙ্গীরচর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে সকাল সাড়ে ৭টায় ও সকাল সাড়ে ৮টায় দুটি জামাত হবে। কামরাঙ্গীরচর হাফেজ্জী হুজুর মসজিদ মাদরাসায় একটি জামাত হবে সকাল ৮টায়।

কাজীপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তিনটি জামাত হবে সকাল ৭টা, ৮টা ও ৮টা ৪৫ মিনিটে। দারুস সালাম মীর বাড়ি আদি (মাদবর বাড়ি) জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টা ও সকাল ৮টায় দুটি জামাত হবে।

পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজার মিয়া সাহেবের ময়দান খানকা শরীফ জামে মসজিদে সকাল ৭টায়, লক্ষ্মীবাজার নূরানি জামে মসজিদে সকাল ৭টা ৪৫ ও সকাল সাড়ে ৮টায় দুটি জামাত হবে।

খিলগাঁও চৌধুরীপাড়া পল্লীমা সংসদ প্রাঙ্গণে সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে হবে ঈদ জামাত। সায়েদাবাদ চিশতিয়া দরবার শরফয় জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায় ঈদ জামাত হবে।

ঢাকায় এবার ১৮৪টি ঈদগাহে ও এক হাজার ৪৮৮টি মসজিদে ঈদের জামাত হবে।

চট্টগ্রাম 

চট্টগ্রামের সকাল ৮টায় ঈদের প্রধান জামাত হবে জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ প্রাঙ্গণে। ইমামতি করবেন মসজিদের খতিব সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আল কাদেরী।

সেখানেই সকাল সাড়ে ৮টায় আরেকটি ঈদ জামাত হবে। এছাড়া লালদীঘি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন শাহী জামে মসজিদে ঈদ জামাত হবে সকাল ৮টায়।

জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় কেন্দ্রীয় ঈদ জামাত কমিটির আয়োজনে সকাল ৯টায় এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেশিয়ামে ঈদের জামাত হবে।

এছাড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে সকাল ৮টায় আরও আটটি মসজিদে ঈদ জামাত হবে। এগুলো- হযরত শেখ ফরিদ (র.) চশমা ঈদগাহ মসজিদ, সুগন্ধা আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, চকবাজার সিটি করপোরেশন জামে মসজিদ, জহুর হকার্স মার্কেট জামে মসজিদ, দক্ষিণ খুলশী (ভিআইপি) আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, আরেফীন নগর কেন্দ্রীয় কবরস্থান জামে মসজিদ, সাগরিকা গরু বাজার জামে মসজিদ ও মা আয়েশা সিদ্দিকী চসিক জামে মসজিদ (সাগরিকা জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম সংলগ্ন)।

এছাড়া নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে একটি করে ঈদ জামাত হবে।

রাজশাহী 

রাজশাহীতে এবার ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় শাহ মখদুম (রহ.) কেন্দ্রীয় ঈদগাহে। তবে বৃষ্টি হলে বা আবহাওয়া প্রতিকূল থাকলে একই সময় ঈদের প্রধান জামাত হবে শাহ মখদুম (রহ.) দরগা জামে মসজিদে। নামাজে আসা মানুষের সংখ্যা বেশি হলে ৪৫ মিনিটের ব্যবধানে দরগা মসজিদে পর পর ঈদের দ্বিতীয় ও তৃতীয় জামাত হবে।

রাজশাহীতে ঈদের দ্বিতীয় প্রধান জামাত হবে সকাল সাড়ে ৭টায় মহানগর ঈদগাহে (টিকাপাড়া)। সেখানে সকাল ৮টায় আরেকটি জামাত হবে। বৃষ্টি হলে একই সময়ে পাশের টিকাপাড়া মোহাম্মপুর জামে মসজিদ কমপ্লেক্সে ঈদের জামাত হবে।

এছাড়া সকাল ৮টায় মহানগরীর তৃতীয় বড় ঈদ জামাত হবে বড় মসজিদ সংলগ্ন সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৮টায় এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় জামে মসজিদে সকাল ৭টায় জামাত হবে।

খুলনা 

খুলনায় ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় সার্কিট হাউস ময়দানে। তবে আবহাওয়া প্রতিকূল থাকলে প্রথম ও প্রধান জামাত সকাল ৮টায় টাউন জামে মসজিদে হবে।

এছাড়া আলিয়া মাদ্রাসার মডেল মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে সকাল সাড়ে ৭টায়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত হবে।

খুলনা সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় ও ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে হবে পৃথক ঈদের জামাত।

বরিশাল 

বরিশাল নগরীতে ঈদের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় বান্দ রোড হেমায়েতউদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। দ্বিতীয় প্রধান জামাত হবে নগরীর আমতলা মোড়ে বরিশাল মডেল মসজিদে। সেখানেও জামাত হবে সকাল ৮টায়।

জেলার সর্ববৃহত জামাত হবে সকাল ৯টায় সদর উপজেলার চরমোনাই ইউনিয়নের চরমেনাই পীরের দরবারে। দ্বিতীয় বৃহৎ ঈদের জামাত হবে সাড়ে ৮টায় উজিরপুরের গুঠিয়ার নান্দনিক বায়তুল আমান মসজিদ কমপ্লেক্সে।

সদর রোডের বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদে সকাল ৮টায় প্রথম এবং সকাল ৯টায় দ্বিতীয় জামাত হবে। নগরীর গির্জামহল্লার জামে কসাই মসজিদে সকাল ৭টায় প্রথম ও ৯টায় দ্বিতীয় জামাত হবে।

বরিশাল মহানগর ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা কাজী আব্দুল মান্নান বলেন, “ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য কোনো সময় বেধে দেওয়া হয়নি। তবে আমরা নগরীতে সকাল ৮টা থেকে ১০টার মধ্যে সব জামাত শেষ করতে চাই।”

সিলেট 

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শাহী ঈদগাহে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায়। একই সময়ে সিলেট সরকারি আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে হবে ঈদের জামাত।

বন্দরবাজারে কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে ঈদের তিনটি জামাত হবে সকাল সাড়ে ৭টা, সকাল সাড়ে ৮টা এবং সকাল সাড়ে ৯টায়।

রংপুর 

রংপুরে সকাল ৮টায় কালেক্টরেট ঈদগাহে হবে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত। আবহাওয়া খারাপ হলে ঈদের প্রধান জামাত হবে রংপুর জেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ৮টায়। সেখানে সকাল ৯টায় হবে দ্বিতীয় জামাত।

এছাড়া মুন্সিপাড়া ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায়, হযরত মাওলানা কেরামত আলী (রহ.) মাজার সংলগ্ন কেরামতিয়া মসজিদে সকাল সাড়ে ৯টায়, মণ্ডল পাড়া বড় ঈদগাহ ও দামোদরপুর বড় ময়দানে সাড়ে ৯টায়, মিঠাপুকুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ৯টায়, বদরগঞ্জ চান্দামাড়ি কারামতিয়া ঈদগাহে সকাল ১০টায়, পীরগাছা জেএন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, কাউনিয়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, তারাগঞ্জ চৌপথি ঈদগাহ, পীরগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ, বদরগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ও সদর উপজেলা পরিষদ ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের জামাত হবে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায়, গঙ্গাচড়ার পাইকান বড় জুম্মা মসজিদ মাঠে সকাল ৯টায় হবে ঈদের জামাত। ধাপ স্টাফ কোয়াটার জামে মসজিদ মাঠে এবং বুড়িরহাট কেন্দ্রীয় ঈদগাহে সকাল ৯টায় ঈদ জামাতের আয়োজন করা হয়েছে। বুড়িরহাট  মাঠ ঈদের জামাত হবে সকাল ৯টায় ।

ময়মনসিংহ 

ময়মনসিংহ জেলার এবার প্রায় আড়াই হাজার স্থানে ঈদুল ফিতরের জামাত হবে। প্রধান জামাত হবে সকাল ৮টায় নগরীর আঞ্জুমান ঈদগাহ মাঠে। একই স্থানে দ্বিতীয় জামাত হবে সকাল পৌনে ৯টায়।

এছাড়া ঐতিহ্যবাহী বড় মসজিদে ঈদের জামাত হবে সকাল সাড়ে ৯টায়। আকুয়া মাদানীনূর মার্কাজ মসজিদ মাঠে সকাল সোয়া ৭টায়, ময়মনসিংহ মার্কাজ মসজিদে সকাল ৮টায়, গোপাল নগর ভাটি পাড়া ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায়, গাঙ্গিনারপাড় জামে মসজিদে সকাল ৮টায়, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ঈদগাহ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায়, বলাশপুর ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায়, সুহিলা বুধ বাড়িয়া ঈদগাহ মাঠে সকাল ৯টায়, জেলাখানা মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের জামাত হবে।

এছাড়া জেলার ৭৩টি স্থানে বড় পরিসরে ঈদের জামাত হবে।