ঢাকা ০৩:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবশেষে কারামুক্ত হলেন মামুনুল হক

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১২:৩১:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪
  • / ৩৮ বার পড়া হয়েছে

ছবি-সদ্য কারা মুক্ত মামুনুল হক

শুক্রবার (৩ মে) সকাল ১০ টার দিকে গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পেয়েছেন।

কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, মাওলানা মামুনুল হক কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে দীর্ঘদিন বন্দী ছিলেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৩৭টি মামলা রয়েছে। সর্বশেষ মামলায় তিনি বৃহস্পতিবার (২ মে) উচ্চ আদালত থেকে জামিন পান। বিকালে জামিনের কাগজপত্র কারাগারে পৌঁছায়।

শুক্রবার সকালে জামিনের সব কাগজপত্র নিয়ে ঢাকায় যোগাযোগ করা হয়। সেখানে কাজ শেষ হলে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।

মামুনুল হকের জামিনে মুক্তি পাওয়ার খবরে কারা ফটকে ভিড় করেন তার সমর্থক ও হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা।

জানা গেছে, মুক্তির পর তিনি ওয়েটিং রুমে অপেক্ষা করেন। মামুনুল হকের ছেলে যিমামুল হক ও অন্যান্য স্বজনরা আসার পর বেলা ১১টার দিকে ব্যক্তিগত গাড়িতে করে তিনি মূল কারাফটক দিয়ে বের হয়ে ঢাকার উদ্দেশে চলে যান। এ সময় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে ‘আলহামদুল্লিাহ ভাল আছি’ ছাড়া আর কোনো কথা বলেননি তিনি।

২০২১ সালের ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। ওই বছরের ১৮ এপ্রিল মোহাম্মদপুরের মাদ্রাসা থেকে মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

নিউজটি শেয়ার করুন

অবশেষে কারামুক্ত হলেন মামুনুল হক

আপডেট সময় ১২:৩১:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪

শুক্রবার (৩ মে) সকাল ১০ টার দিকে গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পেয়েছেন।

কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, মাওলানা মামুনুল হক কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে দীর্ঘদিন বন্দী ছিলেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৩৭টি মামলা রয়েছে। সর্বশেষ মামলায় তিনি বৃহস্পতিবার (২ মে) উচ্চ আদালত থেকে জামিন পান। বিকালে জামিনের কাগজপত্র কারাগারে পৌঁছায়।

শুক্রবার সকালে জামিনের সব কাগজপত্র নিয়ে ঢাকায় যোগাযোগ করা হয়। সেখানে কাজ শেষ হলে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।

মামুনুল হকের জামিনে মুক্তি পাওয়ার খবরে কারা ফটকে ভিড় করেন তার সমর্থক ও হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা।

জানা গেছে, মুক্তির পর তিনি ওয়েটিং রুমে অপেক্ষা করেন। মামুনুল হকের ছেলে যিমামুল হক ও অন্যান্য স্বজনরা আসার পর বেলা ১১টার দিকে ব্যক্তিগত গাড়িতে করে তিনি মূল কারাফটক দিয়ে বের হয়ে ঢাকার উদ্দেশে চলে যান। এ সময় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে ‘আলহামদুল্লিাহ ভাল আছি’ ছাড়া আর কোনো কথা বলেননি তিনি।

২০২১ সালের ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। ওই বছরের ১৮ এপ্রিল মোহাম্মদপুরের মাদ্রাসা থেকে মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।