প্রচ্ছদ

মামলা করতে চায় না মোরসালিনের পরিবারও

2022/04/21/_post_thumb-2022_04_21_20_58_48.png

রাজধানীর নিউ মার্কেট এলাকায় সংঘর্ষের মধ্যে আহত দোকান কর্মচারী মো. মোরসালিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

তিনি কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার কানাইনগর গ্রামের মৃত মানিক মিয়ার ছেলে। স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে কামরাঙ্গীরচর পশ্চিম রসুলপুরে ভাড়া বাসায় থাকতেন মোরসালিন।

আজ দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মোরসালিনের লাশ গ্রহণ করেন বড় ভাই নূর মোহাম্মদ।

তিনি বলেন, ভাইটা কীভাবে মারা গেল, কিছুই জানলাম না। এটা কেবল ও আর আল্লাহ জানেন। ওর শরীরে আঘাত আর ক্ষতের বাইরে আমরা আর কিছুই দেখিনি। …আমাদের বাবা বেঁচে নেই, মা আছেন। মোরসালিন বিয়ে করেছিলেন। তার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।

এ ঘটনায় মামলা করা হবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে নূর মোহাম্মদ বলেন, মামলা করে কি হবে? কার নামে মামলা করবো। এই দেশে কোনো বিচার নেই। কে করবে বিচার?

এ সময় স্বামীর অনেক স্মৃতির কথা তুলে বিলাপ করেন নিহত মোরসালিনের স্ত্রী মিতু। তিনি মোরসালিনের সঙ্গে তার সন্তানদের প্রসঙ্গ নিয়ে বলেন, ‘বাবার কাছেই মেয়ের সব আবদার ছিল। ঈদে বাবার কাছে স্কুলের ব্যাগ, মাথার ব্যান্ড আর কসমেটিকস চেয়েছিল সে। এখন কে ওর আবদার পূরণ করবে?

স্বামীর মৃত্যুর শোক ছাপিয়ে সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন মিতু। তিনি বলেন, ‘আমার শরীর অসুস্থ থাকে। ঘরের কাজই করতে পারি না। এখন আমার বাচ্চাদের ভবিষ্যৎ কে দেখবে?’

গত মঙ্গলবার নিউমার্কেট এলাকায় দোকান কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষে গুরুতর আহত হন মো. মোরসালিন (২৪)। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। নিউ সুপার মার্কেটের একটি রেডিমেড কাপড়ের দোকানের বিক্রয়কর্মী হিসেবে চাকরি করতেন মোরসালিন।

বৃহস্পতিবার ভোর পৌনে পাঁচটার দিকে মারা যান ঢাকা মেডিকেলের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন মোরসালিন। বেলা দেড়টার দিকে ময়নাতদন্ত শেষে মোরসালিনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এরপর মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সে করে মোরসালিনের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জানাজা শেষে মোরসালিনের দাফন হওয়ার কথা রয়েছে।

মামলা করতে না চাওয়ার প্রবণতা এর আগেও কয়েক ভুক্তভোগী পরিবার জানিয়েছিলেন। একই ঘটনায় নিহত নাহিদের পরিবারও জানিয়েছে তারা মামলা করবে না। অতি সম্প্রতি শাহজাহানপুরে গুলিতে নিহত কলেজছাত্রী আফরিন প্রীতির পরিবারও মামলা না করার বিষয়টি জানিয়েছিল।

মন্তব্য