জাতীয়

হাফ ভাড়া কার্যকরের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ চলছেই

2021/11/18/_post_thumb-2021_11_18_14_31_08.jpg

হাফ ভাড়া কার্যকরের দাবিতে ঢাকা কলেজ মূল ফটকের সামনে অবস্থান করেছে ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় প্রথমে কলেজের মূল ফটকে অবস্থান করলেও, পরে রাস্তায় বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। 

শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা যায়, ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির পর থেকে বাস মালিক সমিতি এবং বাস শ্রমিকদের দুর্ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। হাফ ভাড়া নেয়ার পরিবর্তে তাদের সাথে অশোভন আচরণে অতিষ্ঠ সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও গাড়ি থেকে লাঞ্ছিত করে বের করে দেয়ার মতো ঘটনাও পরিলক্ষিত হচ্ছে।

ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থী তানভীর আহমেদ। তার সাথে কথা বলে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে ‘মিরপুর মেট্রো’ বাসে করে ক্যাম্পাসে যাওয়ার সময় হাফ ভাড়া দিতে চাইলে, তা নেয়ার পরিবর্তে তার সাথে খারাপ আচরণ করে বাসের হেলপার।

শুধু তানভীর নয়, এভাবে নিয়মিত হয়রানির শিকার হচ্ছে সকল শিক্ষার্থী। ভাড়া বাড়ানোর পর থেকে শ্রমিকদের অশোভন আচরণ এবং হিংস্রতা দেখা যাচ্ছে বলে জানায় অন্য শিক্ষার্থীরাও।

শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নিশ্চিত করার দাবিতে অবস্থান এবং বিক্ষোভ কর্মসূচি বাস্তবায়নের ফলে আশ্বস্ত হয়ে ক্যাম্পাসে ফিরে যায়।

ঢাকা কলেজ রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘শিক্ষকরা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন, তারা মালিক সমিতির সাথে বসে দ্রুত আমাদের হাফ ভাড়া নিশ্চিত করবেন।’ এ সময় শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে বলা হয়, আগামীকালের মধ্যে দাবি আদায় না হলে আমরা শনিবার থেকে রাস্তায় অবস্থান করব এবং প্রয়োজনে কঠোর আন্দোলনে যাব। আমরা আমাদের দাবি আদায় করেই নিবো।

বৃহস্পতিবারের মধ্যে বাস-মালিক সমিতির সাথে মিটিংয়ে বসে শিক্ষার্থীদের দাবি পুলিশ প্রশাসন এবং মালিক সমিতির সাথে কথা বলে বাস্তবায়নের আশ্বস্ত করেছে, ঢাকা কলেজ শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ড. আবদুল কুদ্দুস শিকদার।

গত কয়েক দিন ধরে সাধারণ শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। তারিই ধারাবাহিকতায় পূর্বের নির্ধারিত সময় অনুযায়ী বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ঢাকা কলেজের মূল ফটকে অবস্থান করে এবং পরবর্তীতে মিরপুর-নিউমার্কেট রোডে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় কয়েকটি বাস আটকে রাখা হয়। পরবর্তীতে কলেজ প্রশাসন এবং নিউমার্কেট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) স ম কাইয়ুমের আশ্বাসে শনিবার সকাল পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে বাসের চাবি ফিরিয়ে দিয়ে রাস্তা থেকে সরে যায় শিক্ষার্থীরা।

মন্তব্য