প্রচ্ছদ

মহানবীকে (সা.) নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে ভারতের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে প্রতিবাদ জানানোর দাবী

2022/06/18/_post_thumb-2022_06_18_10_02_30.jpg

মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন সাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও মিডিয়া প্রধান নবীন কুমার জিন্দালসহ শীর্ষ দুই নেতার অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমেরিকাসহ দুনিয়ার অনেক দেশ প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে। অথচ, জনসংখ্যার দিক থেকে দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম রাষ্ট্র বাংলাদেশ সরকার চুপ করে আছে। অবিলম্বে সংসদে নিন্দা প্রস্তাবের পাশাপাশি ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ডেকে প্রতিবাদ জানানোর আহ্বান জানান বক্তারা।

এই দাবীতে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস।

ঢাকার বাইরে শরীয়তপুর, গাজীপুর, ফরিদপুর, নারায়ণগঞ্জ, সিলেট, খুলনা, হবিগঞ্জ, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, ফেনী, চাঁদপুর, বগুড়াসহ বিভিন্ন জেলা সদরে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে দলটি।

শুক্রবার (১৭ জুন) জুমার নামাজের পর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইট থেকে খেলাফত মজলিসের মিছিলটি শুরু হয়ে। এর আগে উত্তর গেইটে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন দলটির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খেলাফত মজলিসের জ্যেষ্ঠ নায়েবে আমির মাওলানা ইউসুফ আশরাফ বলেন, ‘বিজেপির মিডিয়া সেল প্রধান নূপুর শর্মা মহানবী (সা.) ও আয়েশা (রা.) সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে মুসলমানদের কলিজায় আঘাত করেছে। যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ এর প্রতিবাদ করলেও মুসলিমপ্রধান বাংলাদেশের সরকার এর কোনো প্রতিবাদ করেনি, এটা দুঃখজনক।’

মহানবী (সা.)-কে অবমাননা করার ওই ঘটনায় অবিলম্বে ভারতের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে প্রতিবাদ জানানো ও জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাস করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান মাওলানা ইউসুফ আশরাফ।

মহানবী (সা.)–কে অবমাননার প্রতিবাদে ঢাকার বাইরে শরীয়তপুর, গাজীপুর, ফরিদপুর, নারায়ণগঞ্জ, সিলেট, খুলনা, হবিগঞ্জ, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, ফেনী, চাঁদপুর, বগুড়ায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল হয়।

খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘দুঃখের বিষয়, আমাদের দেশে মুসলিম সরকার হয়েও নীরব ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। যেটা নবীপ্রেমিক মুসলিম জনতা ভালোভাবে নিচ্ছে না। সরকার যদি মহানবী (সা.)–এর সম্মান রক্ষার জন্য কোনো ভূমিকা না রাখে, তাহলে আগামী নির্বাচনে জনগণ তাদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটাবে।’

খেলাফত মজলিসের ঢাকা মহানগরীর সহসভাপতি মাওলানা হাসান জুনাঈদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন দলের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আবদুল আজীজ, কেন্দ্রীয় অফিস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আবুল হাসানাত জালালী, মহানগর সমাজকল্যাণ সম্পাদক মাওলানা আবু হানিফ প্রমুখ।

মন্তব্য