ঢাকা ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছাত্রলীগের ৭ নেতা বহিষ্কার

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ১১:২৩:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ১২৭ বার পড়া হয়েছে

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৩ আসনে নৌকার প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির নানকের গণসংযোগে সংঘর্ষের ঘটনায় সাত ছাত্রলীগ নেতাকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে।

সোমবার কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ইনানের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

বহিষ্কৃতরা হলেন মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদ, সদস্য আসলাম, ছোটন, ভান্ডারী ইমন, ঢাকা মহানগর ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাগর ও সানভির।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের এক জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, সংগঠনবিরোধী, শৃঙ্খলা-পরিপন্থি, অপরাধমূলক এবং সংগঠনের মর্যাদা ক্ষুন্ণ হয় এমন কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হলো।’

জানা গেছে, রোববার মোহাম্মদপুর টাউন হল এলাকায় গণসংযোগ করেন জাহাঙ্গীর কবির নানক। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছাত্রলীগেরই আরেক অংশের ওপর হামলা করেন সাজ্জাদ অনুসারীরা। এতে চারজন আহত হন।

এ ছাড়া সাজ্জাদ মোহাম্মদপুর কাটাসুর এলাকার কিশোর গ্যাংয়ের নিয়ন্ত্রক। তার নেতৃত্বে ছিনতাই, হামলা ও বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নিয়মিত পরিচালিত হতো। সম্প্রতি দুটি গণছিনতাইয়ের ঘটনায়ও তার নাম এসেছে। তিনি মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুল ইসলাম রাসেলের মদদে এসব কর্মকাণ্ড চালাতেন বলে ছাত্রলীগ নেতারা অভিযোগ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ছাত্রলীগের ৭ নেতা বহিষ্কার

আপডেট সময় ১১:২৩:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৩ আসনে নৌকার প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির নানকের গণসংযোগে সংঘর্ষের ঘটনায় সাত ছাত্রলীগ নেতাকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে।

সোমবার কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ইনানের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

বহিষ্কৃতরা হলেন মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদ, সদস্য আসলাম, ছোটন, ভান্ডারী ইমন, ঢাকা মহানগর ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাগর ও সানভির।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের এক জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, সংগঠনবিরোধী, শৃঙ্খলা-পরিপন্থি, অপরাধমূলক এবং সংগঠনের মর্যাদা ক্ষুন্ণ হয় এমন কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হলো।’

জানা গেছে, রোববার মোহাম্মদপুর টাউন হল এলাকায় গণসংযোগ করেন জাহাঙ্গীর কবির নানক। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছাত্রলীগেরই আরেক অংশের ওপর হামলা করেন সাজ্জাদ অনুসারীরা। এতে চারজন আহত হন।

এ ছাড়া সাজ্জাদ মোহাম্মদপুর কাটাসুর এলাকার কিশোর গ্যাংয়ের নিয়ন্ত্রক। তার নেতৃত্বে ছিনতাই, হামলা ও বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নিয়মিত পরিচালিত হতো। সম্প্রতি দুটি গণছিনতাইয়ের ঘটনায়ও তার নাম এসেছে। তিনি মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুল ইসলাম রাসেলের মদদে এসব কর্মকাণ্ড চালাতেন বলে ছাত্রলীগ নেতারা অভিযোগ করেন।