ঢাকা ০৯:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্বামীর কবর জিয়ারত করলেন শেখ হাসিনা

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৬:৩৫:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৮৩ বার পড়া হয়েছে

রংপুরের পীরগঞ্জে লালদীঘির ফতেপুরে শায়িত প্রয়াত স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে ফতেপুরে স্বামীর পারিবারিক কবরস্থানে যান তিনি। এ সময় শ্বশুর, শাশুড়ি, ভাসুর ও প্রয়াত স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করেন শেখ হাসিনা। এরপর প্রধানমন্ত্রী পীরগঞ্জে জনসভাস্থলে যান।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে গত ১৫ বছর ধরে সরকার কাজ করছে। আগে কী অবস্থা ছিল, আজ কী অবস্থা। যে পরিবর্তন হয়েছে, সেটা করাই আমাদের লক্ষ্য। আমরা মানুষের জীবনমান উন্নত করতে কাজ করছি। দেশের মানুষকে শিক্ষিত করতে এবং প্রযুক্তি নির্ভর দক্ষ জনশক্তি গড়তে কাজ করে যাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধু দেশের মানুষের জন্য জীবন উৎসর্গ করেছেন। তিনি স্বাধীন বাংলার দুঃখী মানুষের উন্নয়নে সারা জীবন কাজ করেছে বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তবে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীরা সে সময় আমাকে দেশে আসতে দেয়নি। কিন্তু আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি আপনাদের জন্য দেশে আসতে পেরেছি।

এর আগে দুপুরে তারাগঞ্জে রংপুর-২ আসনের প্রার্থী আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক এবং মিঠাপুকুরে রংপুর-৫ আসনের প্রার্থী রাশেক রহমানের নির্বাচনী প্রচারণা সভায় বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

২০১৮ সালের ২২ ডিসেম্বর তারাগঞ্জ ও পীরগঞ্জে একই মাঠে জনসভা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারও আগে ২০১৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর পীরগঞ্জের তরফমৌজা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পথসভা ও লালদীঘির ফতেহপুরের জয়সদনে কর্মীসভা করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বশেষ এ বছরের ২ আগস্ট রংপুর জিলা স্কুল মাঠে আওয়ামী লীগের জনসভায় বক্তব্য দেন।

এবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুরের ছয়টি সংসদীয় আসনের মধ্যে রংপুর-২ আসনে আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক, রংপুর-৪ আসনে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, রংপুর-৫ আসনে রাশেক রহমান ও রংপুর-৬ আসনে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী দলীয় প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। জাতীয় পার্টির সঙ্গে আসন সমঝোতার কারণে রংপুর-১ আসনে দলীয় প্রার্থী রেজাউল করিম রাজু ও রংপুর-৩ আসন থেকে তুষার কান্তি মণ্ডলকে প্রত্যাহার করে নিয়েছে আওয়ামী লীগ।

নিউজটি শেয়ার করুন

স্বামীর কবর জিয়ারত করলেন শেখ হাসিনা

আপডেট সময় ০৬:৩৫:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩

রংপুরের পীরগঞ্জে লালদীঘির ফতেপুরে শায়িত প্রয়াত স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে ফতেপুরে স্বামীর পারিবারিক কবরস্থানে যান তিনি। এ সময় শ্বশুর, শাশুড়ি, ভাসুর ও প্রয়াত স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করেন শেখ হাসিনা। এরপর প্রধানমন্ত্রী পীরগঞ্জে জনসভাস্থলে যান।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নে গত ১৫ বছর ধরে সরকার কাজ করছে। আগে কী অবস্থা ছিল, আজ কী অবস্থা। যে পরিবর্তন হয়েছে, সেটা করাই আমাদের লক্ষ্য। আমরা মানুষের জীবনমান উন্নত করতে কাজ করছি। দেশের মানুষকে শিক্ষিত করতে এবং প্রযুক্তি নির্ভর দক্ষ জনশক্তি গড়তে কাজ করে যাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধু দেশের মানুষের জন্য জীবন উৎসর্গ করেছেন। তিনি স্বাধীন বাংলার দুঃখী মানুষের উন্নয়নে সারা জীবন কাজ করেছে বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তবে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীরা সে সময় আমাকে দেশে আসতে দেয়নি। কিন্তু আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি আপনাদের জন্য দেশে আসতে পেরেছি।

এর আগে দুপুরে তারাগঞ্জে রংপুর-২ আসনের প্রার্থী আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক এবং মিঠাপুকুরে রংপুর-৫ আসনের প্রার্থী রাশেক রহমানের নির্বাচনী প্রচারণা সভায় বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

২০১৮ সালের ২২ ডিসেম্বর তারাগঞ্জ ও পীরগঞ্জে একই মাঠে জনসভা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারও আগে ২০১৩ সালের ৩১ ডিসেম্বর পীরগঞ্জের তরফমৌজা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পথসভা ও লালদীঘির ফতেহপুরের জয়সদনে কর্মীসভা করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বশেষ এ বছরের ২ আগস্ট রংপুর জিলা স্কুল মাঠে আওয়ামী লীগের জনসভায় বক্তব্য দেন।

এবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রংপুরের ছয়টি সংসদীয় আসনের মধ্যে রংপুর-২ আসনে আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক, রংপুর-৪ আসনে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, রংপুর-৫ আসনে রাশেক রহমান ও রংপুর-৬ আসনে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী দলীয় প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। জাতীয় পার্টির সঙ্গে আসন সমঝোতার কারণে রংপুর-১ আসনে দলীয় প্রার্থী রেজাউল করিম রাজু ও রংপুর-৩ আসন থেকে তুষার কান্তি মণ্ডলকে প্রত্যাহার করে নিয়েছে আওয়ামী লীগ।