ঢাকা ০৪:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকা-৪ আসনের ফল স্থগিত

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৫:০৭:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ১৫২ বার পড়া হয়েছে

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-৪ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম পরাজিত হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাক প্রতীকের আওলাদ হোসেনের কাছে। এখন সেই ফলাফল হাইকোর্টে স্থগিত হয়ে গেছে।

সানজিদা খানমের রিটের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি মো. বশির উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ স্থগিতাদেশ দেন।

এই আসনটি সূত্রাপুর (ডিএসসিসি ওয়ার্ড ৪৭), ডেমরা (ডিএসসিসি ওয়ার্ড ৫১, ৫২, ৫৩, ৫৪, ৫৮, ৫৯) উপজেলা নিয়ে গঠিত।

রোববার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ। বিভিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে সারা দেশে একতরফা নির্বাচনের আয়োজন করে আ.লীগ। নির্বাচন হয় ২৯৯ আসনে। ২৮টি রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্র মিলে প্রার্থী ছিলেন ১৯৭১ জন। ভোট নেওয়া হয় ব্যালট পেপারে।

সেই ভোটে আওলাদ হোসেন ২৪ হাজার ৭৭৫টি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রতীক নিয়ে সানজিদা খানম পান ২২ হাজার ৫৭৭টি ভোট। এই আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা লাঙল প্রতীক নিয়ে ৭ হাজার ৭৯৮ ভোট পেয়েছেন। এখন নৌকার প্রার্থীর রিট আবেদনে ভোটের এই ফলাফল আটকে গেল।

নিউজটি শেয়ার করুন

ঢাকা-৪ আসনের ফল স্থগিত

আপডেট সময় ০৫:০৭:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-৪ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম পরাজিত হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাক প্রতীকের আওলাদ হোসেনের কাছে। এখন সেই ফলাফল হাইকোর্টে স্থগিত হয়ে গেছে।

সানজিদা খানমের রিটের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি মো. বশির উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ স্থগিতাদেশ দেন।

এই আসনটি সূত্রাপুর (ডিএসসিসি ওয়ার্ড ৪৭), ডেমরা (ডিএসসিসি ওয়ার্ড ৫১, ৫২, ৫৩, ৫৪, ৫৮, ৫৯) উপজেলা নিয়ে গঠিত।

রোববার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ। বিভিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে সারা দেশে একতরফা নির্বাচনের আয়োজন করে আ.লীগ। নির্বাচন হয় ২৯৯ আসনে। ২৮টি রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্র মিলে প্রার্থী ছিলেন ১৯৭১ জন। ভোট নেওয়া হয় ব্যালট পেপারে।

সেই ভোটে আওলাদ হোসেন ২৪ হাজার ৭৭৫টি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রতীক নিয়ে সানজিদা খানম পান ২২ হাজার ৫৭৭টি ভোট। এই আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা লাঙল প্রতীক নিয়ে ৭ হাজার ৭৯৮ ভোট পেয়েছেন। এখন নৌকার প্রার্থীর রিট আবেদনে ভোটের এই ফলাফল আটকে গেল।