ঢাকা ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাবরি মসজিদের স্থানে নির্মিত রাম মন্দিরের প্রসাদে চাল গেল বাংলাদেশ থেকে

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৮:২৯:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ৪২৪ বার পড়া হয়েছে

রাত পোহালেই উদ্বোধন করা হবে রাম মন্দির। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হাত ধরেই এই মন্দিরে রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা করা হবে। ইতোমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে সব আয়োজন। ফলে অনেকের চোখ এখন অযোধ্যার রাম মন্দিরের দিকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রাম মন্দিরে মূর্তি প্রতিষ্ঠা করার আগেই, ভূমি পূজার প্রসাদ বা ‘অক্ষত চাউল’ পৌঁছে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়। এই চাল বা প্রসাদ এসেছে বাংলাদেশ থেকেও। এর আগে প্রসাদের জন্য বাংলাদেশ থেকেও অযোধ্যায় চাল পাঠানো হয়।

গত বুধবার বাংলাদেশে এই প্রসাদ পাঠানো হয়। এদিন দুপুরে বেনাপোল চেকপোষ্টে ভারতের হিন্দু মহাজোটের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট নেতাদের কাছে ২০০ প্যাকেট প্রসাদ হস্তান্তর করা হয়। সেই সঙ্গে মন্দির প্রতিষ্ঠার জন্য আমন্ত্রণপত্র এবং লিফলেট দেয়া হয়েছে বাংলাদেশের হিন্দু সংগঠনের নেতাদের হাতেও।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট যশোরের শাখা আহ্বায়ক অমল অধিকারী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমরাও চেয়েছিলাম অযোধ্যায় রাম মন্দির করা হোক। অবশেষে, এতদিন পরে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে সেই রাম মন্দির। এটা হিন্দু জাতির মানুষের কাছে খুবই গর্বের দিন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে ৬৪টি জেলায় বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট কমিটি গঠন করা হয়েছে । এই প্রসাদ চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনাসহ বিভিন্ন জায়গায় পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট কমিটির নেতারা জানান, উদ্বোধনের সশরীরে অযোধ্যায় আসতে না পারলেও তাদের সবার মন পড়ে থাকবে রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা অনুষ্ঠানে। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় ছোট খাটো অনেক রাম মন্দির আছে। সেই মন্দিরগুলোতে সোমবার বিশেষ পূজার আয়োজন করা হবে বলেও জানান তারা।

জানা গেছে, সোমবার দুপুর ১২টার দিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত হবেন অযোধ্যার রাম মন্দিরে। তারপরে প্রায় ৫০ মিনিট ধরে হবে রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা উৎসব।

নিউজটি শেয়ার করুন

বাবরি মসজিদের স্থানে নির্মিত রাম মন্দিরের প্রসাদে চাল গেল বাংলাদেশ থেকে

আপডেট সময় ০৮:২৯:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৪

রাত পোহালেই উদ্বোধন করা হবে রাম মন্দির। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হাত ধরেই এই মন্দিরে রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা করা হবে। ইতোমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে সব আয়োজন। ফলে অনেকের চোখ এখন অযোধ্যার রাম মন্দিরের দিকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রাম মন্দিরে মূর্তি প্রতিষ্ঠা করার আগেই, ভূমি পূজার প্রসাদ বা ‘অক্ষত চাউল’ পৌঁছে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়। এই চাল বা প্রসাদ এসেছে বাংলাদেশ থেকেও। এর আগে প্রসাদের জন্য বাংলাদেশ থেকেও অযোধ্যায় চাল পাঠানো হয়।

গত বুধবার বাংলাদেশে এই প্রসাদ পাঠানো হয়। এদিন দুপুরে বেনাপোল চেকপোষ্টে ভারতের হিন্দু মহাজোটের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট নেতাদের কাছে ২০০ প্যাকেট প্রসাদ হস্তান্তর করা হয়। সেই সঙ্গে মন্দির প্রতিষ্ঠার জন্য আমন্ত্রণপত্র এবং লিফলেট দেয়া হয়েছে বাংলাদেশের হিন্দু সংগঠনের নেতাদের হাতেও।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট যশোরের শাখা আহ্বায়ক অমল অধিকারী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমরাও চেয়েছিলাম অযোধ্যায় রাম মন্দির করা হোক। অবশেষে, এতদিন পরে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে সেই রাম মন্দির। এটা হিন্দু জাতির মানুষের কাছে খুবই গর্বের দিন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে ৬৪টি জেলায় বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট কমিটি গঠন করা হয়েছে । এই প্রসাদ চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনাসহ বিভিন্ন জায়গায় পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ হিন্দু মহাজোট কমিটির নেতারা জানান, উদ্বোধনের সশরীরে অযোধ্যায় আসতে না পারলেও তাদের সবার মন পড়ে থাকবে রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা অনুষ্ঠানে। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় ছোট খাটো অনেক রাম মন্দির আছে। সেই মন্দিরগুলোতে সোমবার বিশেষ পূজার আয়োজন করা হবে বলেও জানান তারা।

জানা গেছে, সোমবার দুপুর ১২টার দিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত হবেন অযোধ্যার রাম মন্দিরে। তারপরে প্রায় ৫০ মিনিট ধরে হবে রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা উৎসব।