ঢাকা ০৬:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘টর্ট আইন’ ও ‘বিধি’ প্রণয়নে সরকারকে লিগ্যাল নোটিশ

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৫:৪০:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ৪৭ বার পড়া হয়েছে

দুর্ঘটনা, অবহেলাজনিত ক্ষতিসহ মৃত্যু রোধ ও ভিকটিমদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ আদায়ের লক্ষ্যে ‘টর্ট আইন’ ও ‘বিধি’ প্রণয়ন করার দাবিতে সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (২২ জানুয়ারি) টর্ট আইন ও বিধি প্রণয়নের দাবিতে জনস্বার্থে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো: জে আর খান রবিন এই লিগ্যাল নোটিশ পাঠান।

লিগ্যাল নোটিশে বলা হয়েছে, যৌক্তিক সময়ের মধ্যে টর্ট আইন প্রণয়নের বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে আইন প্রণয়নের বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করা হবে।

আইন কমিশনের চেয়ারম্যান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব, জাতীয় সংসদের সচিব, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ পাঁচজনকে রেজিস্ট্রার্ড ডাকযোগে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়, ‘আমি বাংলাদেশের নাগরিক ও সুপ্রিম কোর্টের একজন নিয়মিত আইনজীবী। দেশের প্রচলিত আইন সম্পর্কে অবগত রয়েছি। তাই সংবিধানের ২১ অনুচ্ছেদের অনুবলে ক্ষতিপূরণ ও অন্যান্য বিষয়ে টর্ট আইন প্রয়োগের জন্য বিধি চেয়ে জনস্বার্থে নোটিশ পাঠিয়েছি।

এতে বলা হয়, টর্টের আওতায় এ বিষয়ে মামলা হলেও ক্ষতি নির্ধারণে কোনো নীতিমালা না থাকায় ভিকটিম পরিবার ও ক্ষতিগ্রস্তরা উপকৃত হওয়ার হারও উল্লেখযোগ্য না। তাছাড়া অনেক ক্ষেত্রে সাধারণ জনগণ নানাবিধ জটিলতার কারণে এসব বিষয়ে আইনগত প্রতিকার গ্রহণে ব্যর্থ হচ্ছেন। অথচ আমাদের মতো একটি উন্নয়নশীল দেশে এমন গুরুত্বপূর্ণ আইনের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম।

সুতরাং অবহেলাজনিত ক্ষতিসহ মৃত্যু রোধকল্পে ও যথাযথ ক্ষতিপূরণ আদায়ের লক্ষ্যে ‘টর্ট আইন’ ও ‘বিধি’ প্রণয়ন একান্ত আবশ্যক। অতএব, নোটিশ পাওয়ার পর যৌক্তিক সময়ের মধ্যে আমাদের দেশের সমস্যার সাথে সমন্বয় করে টর্ট আইন ও বিধি প্রণয়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আপনাদেরকে বিশেষভাবে বলা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

‘টর্ট আইন’ ও ‘বিধি’ প্রণয়নে সরকারকে লিগ্যাল নোটিশ

আপডেট সময় ০৫:৪০:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৪

দুর্ঘটনা, অবহেলাজনিত ক্ষতিসহ মৃত্যু রোধ ও ভিকটিমদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ আদায়ের লক্ষ্যে ‘টর্ট আইন’ ও ‘বিধি’ প্রণয়ন করার দাবিতে সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (২২ জানুয়ারি) টর্ট আইন ও বিধি প্রণয়নের দাবিতে জনস্বার্থে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো: জে আর খান রবিন এই লিগ্যাল নোটিশ পাঠান।

লিগ্যাল নোটিশে বলা হয়েছে, যৌক্তিক সময়ের মধ্যে টর্ট আইন প্রণয়নের বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে আইন প্রণয়নের বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করা হবে।

আইন কমিশনের চেয়ারম্যান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব, জাতীয় সংসদের সচিব, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ পাঁচজনকে রেজিস্ট্রার্ড ডাকযোগে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়, ‘আমি বাংলাদেশের নাগরিক ও সুপ্রিম কোর্টের একজন নিয়মিত আইনজীবী। দেশের প্রচলিত আইন সম্পর্কে অবগত রয়েছি। তাই সংবিধানের ২১ অনুচ্ছেদের অনুবলে ক্ষতিপূরণ ও অন্যান্য বিষয়ে টর্ট আইন প্রয়োগের জন্য বিধি চেয়ে জনস্বার্থে নোটিশ পাঠিয়েছি।

এতে বলা হয়, টর্টের আওতায় এ বিষয়ে মামলা হলেও ক্ষতি নির্ধারণে কোনো নীতিমালা না থাকায় ভিকটিম পরিবার ও ক্ষতিগ্রস্তরা উপকৃত হওয়ার হারও উল্লেখযোগ্য না। তাছাড়া অনেক ক্ষেত্রে সাধারণ জনগণ নানাবিধ জটিলতার কারণে এসব বিষয়ে আইনগত প্রতিকার গ্রহণে ব্যর্থ হচ্ছেন। অথচ আমাদের মতো একটি উন্নয়নশীল দেশে এমন গুরুত্বপূর্ণ আইনের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম।

সুতরাং অবহেলাজনিত ক্ষতিসহ মৃত্যু রোধকল্পে ও যথাযথ ক্ষতিপূরণ আদায়ের লক্ষ্যে ‘টর্ট আইন’ ও ‘বিধি’ প্রণয়ন একান্ত আবশ্যক। অতএব, নোটিশ পাওয়ার পর যৌক্তিক সময়ের মধ্যে আমাদের দেশের সমস্যার সাথে সমন্বয় করে টর্ট আইন ও বিধি প্রণয়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আপনাদেরকে বিশেষভাবে বলা হচ্ছে।