ঢাকা ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রেল লাইনে বসে মোবাইলে গেমস খেলার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে ২ কিশোরের মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৭:৩৭:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ৪০ বার পড়া হয়েছে

জামালপুরের মেলান্দহে রেল লাইনের ওপর বসে মোবাইল ফোনে গেমস খেলার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে দুই কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।

মেলান্দহের রুকনাই এলাকায় সোমবার দুপুরে দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনে কাটা পড়ে তাদের মৃত্যু হয়।

নিহতরা হলেন- পূর্ব রোকনাই গ্রামের শাহিদ মিয়ার ছেলে মজিবুর রহমান ও শাহাবুদ্দিন মাক্কুর ছেলে শাকিল মিয়া।

জামালপুর জিআরপি থানার ওসি মাহবুবুর রহমান জানান, নিহত দুই কিশোর সম্পর্কে চাচাতো ভাই। তারা দুজন রেল লাইনের ওপর বসে কানে হেডফোন লাগিয়ে মোবাইল ফোনে গেমস খেলছিলেন। এ অবস্থায় ট্রেন এসে পড়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।  পরে স্থানীয়রা তাদের লাশ উদ্ধার করে।

তাদের বন্ধু জুনায়েদ আহমেদ বলেন, তারা দুজনেই সকালে চাদর মুড়ি দিয়ে রেললাইনে বসে ফ্রি ফায়ার গেম খেলছিলেন। কানে দুজনেরই হেডফোন ছিল। ওই সময় কয়েকজন লাইন থেকে তাদের উঠে যেতে বলেছিলেন কিন্তু তারা শোনেননি। ট্রেন অনেক হুইসেল দিলেও তারা শোনেননি।

নিউজটি শেয়ার করুন

রেল লাইনে বসে মোবাইলে গেমস খেলার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে ২ কিশোরের মৃত্যু

আপডেট সময় ০৭:৩৭:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৪

জামালপুরের মেলান্দহে রেল লাইনের ওপর বসে মোবাইল ফোনে গেমস খেলার সময় ট্রেনে কাটা পড়ে দুই কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।

মেলান্দহের রুকনাই এলাকায় সোমবার দুপুরে দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনে কাটা পড়ে তাদের মৃত্যু হয়।

নিহতরা হলেন- পূর্ব রোকনাই গ্রামের শাহিদ মিয়ার ছেলে মজিবুর রহমান ও শাহাবুদ্দিন মাক্কুর ছেলে শাকিল মিয়া।

জামালপুর জিআরপি থানার ওসি মাহবুবুর রহমান জানান, নিহত দুই কিশোর সম্পর্কে চাচাতো ভাই। তারা দুজন রেল লাইনের ওপর বসে কানে হেডফোন লাগিয়ে মোবাইল ফোনে গেমস খেলছিলেন। এ অবস্থায় ট্রেন এসে পড়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।  পরে স্থানীয়রা তাদের লাশ উদ্ধার করে।

তাদের বন্ধু জুনায়েদ আহমেদ বলেন, তারা দুজনেই সকালে চাদর মুড়ি দিয়ে রেললাইনে বসে ফ্রি ফায়ার গেম খেলছিলেন। কানে দুজনেরই হেডফোন ছিল। ওই সময় কয়েকজন লাইন থেকে তাদের উঠে যেতে বলেছিলেন কিন্তু তারা শোনেননি। ট্রেন অনেক হুইসেল দিলেও তারা শোনেননি।