ঢাকা ০২:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

স্কুল পরিবর্তন করায় ছাত্রকে হত্যাচেষ্টা যুবলীগ নেতার

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ১০:০১:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ৬৮ বার পড়া হয়েছে

গাজীপুরে স্কুল পরিবর্তন করায় কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীকে এলোপাতাড়ি মারধর ও গলা চেপে ধরে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় যুবলীগ নেতা মামুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা পূবাইল ইউনাইটেড প্রি ক্যাডেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও শিক্ষক মতিন ভূঁইয়ার বড় ছেলে।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার বিকালে (গাসিক) মহানগরীর পূবাইল থানাধীন ৪০নং ওয়ার্ড কুদাব এলাকায়।

এদিকে শিশু শিক্ষার্থী নাসিরের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা দৌড়ে ঘটনাস্থল থেকে আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে টঙ্গী শহিদ আহসানউল্লাহ মাস্টার হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় আহতের মা নাজমা বেগম বাদী শনিবার রাতেই পূবাইল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, আহত শিক্ষার্থী নাসিরের বাবা গার্মেন্টসকর্মী আব্দুল আলিম ও তার মা পূবাইল থানার ৪০নং ওয়ার্ডের কুদাব বাগিচা এলাকার রোমানের বাড়িতে ভাড়াটে। তারা যুবলীগ নেতা মামুন ভূঁইয়ার ইউনাইটেড প্রি ক্যাডেট স্কুলে ভর্তি করেন ছেলেকে।

সেখানে প্রতিনিয়ত স্কুলে তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করা হতো। নির্যাতনের কারণে স্কুলে যেতে অনীহা প্রকাশ করে সে। সন্তানের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে তাকে পার্শ্ববর্তী ক্রিয়েটিভ আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি করে।

শনিবার তার নিজ প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা চলাকালীন সময় নাসিরকে একা পেয়ে টেনেহিঁচড়ে রাস্তার গলির চিপায় নিয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে গলা চেপে ধরে হত্যার চেষ্টা করে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা মামুন ভূঁইয়া।

পরে স্থানীয়রা শিশুটিকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করে। আহতের গ্রামের বাড়ি জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ থানার কুতুবের চরের মণ্ডলপাড়া এলাকায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মামুন ভূঁইয়ার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে পূবাইল থানার ওসি কামরুজ্জামান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

স্কুল পরিবর্তন করায় ছাত্রকে হত্যাচেষ্টা যুবলীগ নেতার

আপডেট সময় ১০:০১:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৪

গাজীপুরে স্কুল পরিবর্তন করায় কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীকে এলোপাতাড়ি মারধর ও গলা চেপে ধরে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় যুবলীগ নেতা মামুন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা পূবাইল ইউনাইটেড প্রি ক্যাডেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও শিক্ষক মতিন ভূঁইয়ার বড় ছেলে।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার বিকালে (গাসিক) মহানগরীর পূবাইল থানাধীন ৪০নং ওয়ার্ড কুদাব এলাকায়।

এদিকে শিশু শিক্ষার্থী নাসিরের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা দৌড়ে ঘটনাস্থল থেকে আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে টঙ্গী শহিদ আহসানউল্লাহ মাস্টার হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় আহতের মা নাজমা বেগম বাদী শনিবার রাতেই পূবাইল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, আহত শিক্ষার্থী নাসিরের বাবা গার্মেন্টসকর্মী আব্দুল আলিম ও তার মা পূবাইল থানার ৪০নং ওয়ার্ডের কুদাব বাগিচা এলাকার রোমানের বাড়িতে ভাড়াটে। তারা যুবলীগ নেতা মামুন ভূঁইয়ার ইউনাইটেড প্রি ক্যাডেট স্কুলে ভর্তি করেন ছেলেকে।

সেখানে প্রতিনিয়ত স্কুলে তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করা হতো। নির্যাতনের কারণে স্কুলে যেতে অনীহা প্রকাশ করে সে। সন্তানের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে তাকে পার্শ্ববর্তী ক্রিয়েটিভ আইডিয়াল স্কুলে ভর্তি করে।

শনিবার তার নিজ প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা চলাকালীন সময় নাসিরকে একা পেয়ে টেনেহিঁচড়ে রাস্তার গলির চিপায় নিয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে গলা চেপে ধরে হত্যার চেষ্টা করে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা মামুন ভূঁইয়া।

পরে স্থানীয়রা শিশুটিকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করে। আহতের গ্রামের বাড়ি জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ থানার কুতুবের চরের মণ্ডলপাড়া এলাকায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মামুন ভূঁইয়ার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে পূবাইল থানার ওসি কামরুজ্জামান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।