ঢাকা ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ছাত্রশিবিরের ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৮:২৫:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৭৯ বার পড়া হয়েছে

৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করে ইসলামী ছাত্রশিবির চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ শাখা

৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে রাজধানীসহ সারাদেশে বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা, সেমিনার, শিক্ষা সামগ্রী উপহারসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি মঞ্জরুল ইসলাম বলেন- এদেশে সম্ভাবনায় ভরপুর তারুণ্যের শক্তি আছে। যারা একটি সমৃদ্ধ দেশ, জাতি ও সভ্যতা গড়ে তুলতে পারে। এ জন্য প্রয়োজন দৃঢ়চেতা ও নৈতিকতা সম্পন্ন দেশপ্রেমিক তরুণ সমাজ।

কিন্তু জাতি সেই কাঙ্ক্ষিত তারুণ্যের উদ্যোম থেকে বঞ্চিত। ফলে স্বাধীনতার দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও জাতির বহুল প্রত্যাশিত সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলা সম্ভব হয়নি। জাতির এই প্রত্যাশা পূরণের জন্য আদর্শিক নেতৃত্ব ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার মহান লক্ষ্য নিয়ে নানাবিধ প্রতিকূলতার মাঝে বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্র শিবিরের যাত্রা শুরু হয়।

তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য সৎ, দক্ষ ও আদর্শিক নাগরিক তৈরির মাধ্যমে জাতির প্রত্যাশা পুরণ। এ লক্ষ্য পূরণে মহান আল্লাহ তায়ালার প্রতি অবিচল আস্থা ও বিশ্বাস, সীমাহীন ত্যাগ, সর্বোচ্চ ধৈর্য এবং গঠনমূলক কাজের মাধ্যমে ছাত্র শিবিরের লক্ষাধিক জনশক্তি এগিয়ে চলছে। সময়ের ব্যবধানে ছাত্রশিবির আজ দেশে সর্ববৃহৎ সুশৃঙ্খল ছাত্র সংগঠনে পরিণত হয়েছে। সীমাহীন প্রতিকূলতার মাঝেও আমাদের অবস্থানও সৃদুঢ়। পথচলার পরতে পরতে আমাদের ত্যাগ ও কুরবানির দৃষ্টান্ত জাতির নিকট দৃশ্যমান। হাজারো প্রতিকূলতা, বিপত্তি ও হতাশার মাঝেও আমাদের দৃঢ় পথচলা ও গঠনমূলক কাজ অব্যাহত ছিল। ফলে ছাত্রশিবির তরুণদের মাঝে জাহেলিয়াতের ফিতনায় জর্জরিত সমাজ পরিবর্তনের স্বপ্ন তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। যে স্বপ্ন ইতোমধ্যে ছড়িয়ে গেছে দেশের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের মাঝেও। ফলে শত বাধা সত্ত্বেও ছাত্রশিবির আজ লাখো ছাত্রের প্রিয় ঠিকানা।

তিনি আরও বলেন, আমাদের মাঝে কোন হতাশা বা ভীতি নেই। বরং আছে সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে ও গন্তব্য যেখানে পৌঁছাতে আমরা আত্মবিশ্বাসী। দেশ, জাতি ও ইসলামের প্রশ্নে ছাত্রশিবির সর্বদা ছিল অবিচল ও নিবেদিতপ্রাণ। আমরা দেশের মানুষের স্বপ্ন পূরণ করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। মহান আল্লাহ তায়ালার প্রতি অবিচল আস্থা ও বিশ্বাস আমাদের ভিত্তি। পবিত্র কুরআন আমাদের পথচলার পাথেয়।

একইসাথে প্রতিষ্ঠার ৪৭তম বার্ষিকীর দিনে সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য পূরণে অবিচল থাকার দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষণা করেন। পাশাপাশি ছাত্রশিবিরের আদর্শিক পথচলায় ছাত্রজনতার আন্তরিক সহযোগিতা আহবান করেন।

অন্যদিকে ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভার আয়োজন করে ইসলামী ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগর পূর্ব শাখা। আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেক্রেটারি জেনারেল জাহিদুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছাত্রজনতা কর্মসূচি পালন করেন। ঢাকা মহানগর পূর্ব, ঢাকা মহানগর উত্তর, ঢাকা মহানগর পশ্চিম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ, চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর-দক্ষিণ, সিলেট, কুমিল্লা, রংপুর, নারায়ণগঞ্জ, বরিশাল, ময়মনসিংহ মহানগর এবং বিভিন্ন শহর, জেলা ও থানা শাখায় র‍্যালি, আলোচনা সভা, শিক্ষা সামগ্রী উপহার, ক্যাম্পাস পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ছাত্রশিবিরের ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

আপডেট সময় ০৮:২৫:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে রাজধানীসহ সারাদেশে বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা, সেমিনার, শিক্ষা সামগ্রী উপহারসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি মঞ্জরুল ইসলাম বলেন- এদেশে সম্ভাবনায় ভরপুর তারুণ্যের শক্তি আছে। যারা একটি সমৃদ্ধ দেশ, জাতি ও সভ্যতা গড়ে তুলতে পারে। এ জন্য প্রয়োজন দৃঢ়চেতা ও নৈতিকতা সম্পন্ন দেশপ্রেমিক তরুণ সমাজ।

কিন্তু জাতি সেই কাঙ্ক্ষিত তারুণ্যের উদ্যোম থেকে বঞ্চিত। ফলে স্বাধীনতার দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও জাতির বহুল প্রত্যাশিত সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ে তুলা সম্ভব হয়নি। জাতির এই প্রত্যাশা পূরণের জন্য আদর্শিক নেতৃত্ব ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার মহান লক্ষ্য নিয়ে নানাবিধ প্রতিকূলতার মাঝে বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্র শিবিরের যাত্রা শুরু হয়।

তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য সৎ, দক্ষ ও আদর্শিক নাগরিক তৈরির মাধ্যমে জাতির প্রত্যাশা পুরণ। এ লক্ষ্য পূরণে মহান আল্লাহ তায়ালার প্রতি অবিচল আস্থা ও বিশ্বাস, সীমাহীন ত্যাগ, সর্বোচ্চ ধৈর্য এবং গঠনমূলক কাজের মাধ্যমে ছাত্র শিবিরের লক্ষাধিক জনশক্তি এগিয়ে চলছে। সময়ের ব্যবধানে ছাত্রশিবির আজ দেশে সর্ববৃহৎ সুশৃঙ্খল ছাত্র সংগঠনে পরিণত হয়েছে। সীমাহীন প্রতিকূলতার মাঝেও আমাদের অবস্থানও সৃদুঢ়। পথচলার পরতে পরতে আমাদের ত্যাগ ও কুরবানির দৃষ্টান্ত জাতির নিকট দৃশ্যমান। হাজারো প্রতিকূলতা, বিপত্তি ও হতাশার মাঝেও আমাদের দৃঢ় পথচলা ও গঠনমূলক কাজ অব্যাহত ছিল। ফলে ছাত্রশিবির তরুণদের মাঝে জাহেলিয়াতের ফিতনায় জর্জরিত সমাজ পরিবর্তনের স্বপ্ন তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। যে স্বপ্ন ইতোমধ্যে ছড়িয়ে গেছে দেশের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের মাঝেও। ফলে শত বাধা সত্ত্বেও ছাত্রশিবির আজ লাখো ছাত্রের প্রিয় ঠিকানা।

তিনি আরও বলেন, আমাদের মাঝে কোন হতাশা বা ভীতি নেই। বরং আছে সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্যে ও গন্তব্য যেখানে পৌঁছাতে আমরা আত্মবিশ্বাসী। দেশ, জাতি ও ইসলামের প্রশ্নে ছাত্রশিবির সর্বদা ছিল অবিচল ও নিবেদিতপ্রাণ। আমরা দেশের মানুষের স্বপ্ন পূরণ করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। মহান আল্লাহ তায়ালার প্রতি অবিচল আস্থা ও বিশ্বাস আমাদের ভিত্তি। পবিত্র কুরআন আমাদের পথচলার পাথেয়।

একইসাথে প্রতিষ্ঠার ৪৭তম বার্ষিকীর দিনে সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য পূরণে অবিচল থাকার দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষণা করেন। পাশাপাশি ছাত্রশিবিরের আদর্শিক পথচলায় ছাত্রজনতার আন্তরিক সহযোগিতা আহবান করেন।

অন্যদিকে ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভার আয়োজন করে ইসলামী ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগর পূর্ব শাখা। আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেক্রেটারি জেনারেল জাহিদুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছাত্রজনতা কর্মসূচি পালন করেন। ঢাকা মহানগর পূর্ব, ঢাকা মহানগর উত্তর, ঢাকা মহানগর পশ্চিম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ, চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর-দক্ষিণ, সিলেট, কুমিল্লা, রংপুর, নারায়ণগঞ্জ, বরিশাল, ময়মনসিংহ মহানগর এবং বিভিন্ন শহর, জেলা ও থানা শাখায় র‍্যালি, আলোচনা সভা, শিক্ষা সামগ্রী উপহার, ক্যাম্পাস পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।