ঢাকা ০১:০৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তামিম-মায়ারের দুর্দান্ত জুটিতে বরিশালের ৭ উইকেটে জয়

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৩৮:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৬৭ বার পড়া হয়েছে

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ফরচুন বরিশাল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে। কাইল মায়ার্সের মাত্র ২৬ বলে ৫০ ও তামিম ইকবালের ৪৩ বলে অপরাজিত ৫২ রানের বদৌলতে বরিশাল চট্টগ্রামের ১৩৬ রানের টার্গেট তাড়া করতে সাহায্য করে। বরিশালের দুর্দান্ত জয় তাদের কোয়ালিফায়ার ২ -এ পৌঁছাতে সহায়তা করেছিল।

১৩৬ রান তাড়া করতে নেমে তামিম ইকবাল চট্টগ্রামের বোলারদের ছটফট করতে থাকেন। তারা আগে সৌম্য সরকারকে শূন্য রানে হারিয়েছিল কিন্তু এটি কাইল মায়ার্সকে ক্রিজে নিয়ে এসেছিল যিনি আজ বিস্ট মুডে ছিলেন। তিনি শুভাগত হোমকে একটি ওভারে তিনটি ছক্কা এবং দুটি চারে ধূমপান করে ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ করেন। বিলাল খানের কাছে পড়ার আগে মাত্র ২৫ বলে পঞ্চাশ ছুঁয়ে ফেলেন। অধিনায়ক তামিম ইকবাল একপ্রান্ত ধরে জয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন। তামিম ইকবাল দারুণ ৫২ রান করে নিজের দলকে বাড়ি নিয়ে যান।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নামে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। ব্যাট করতে নেমেই তারা সব দেখেন। দ্রুত কিছু উইকেট হারানো এবং পাওয়ারপ্লে কাজে লাগাতে পারেনি। পেশী পুরুষ জোশ ব্রাউন ২২ বলে ৩৪ রান করে ওবেদ ম্যাককয়ের কাছে আউট হয়।
জশ ব্রাউনের পতনের পর চট্টগ্রামে ভয়াবহ পতন ঘটে। অধিনায়ক শুভাগত হোম ১৬ বলে মাত্র ২৪ রান করেন, ব্রাউনের ৩৪ রানের পরে দেখানোর মতো কিছু। এখানে এবং সেখানে স্কোর ২০ ওভারে ১৩৫ রান সংগ্রহ করে, যা শেষ পর্যন্ত বরিশালের একটি মানসম্পন্ন ব্যাটিং লাইনআপের সামনে উল্লেখযোগ্য ছিল না।

নিউজটি শেয়ার করুন

তামিম-মায়ারের দুর্দান্ত জুটিতে বরিশালের ৭ উইকেটে জয়

আপডেট সময় ০৫:৩৮:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ফরচুন বরিশাল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে। কাইল মায়ার্সের মাত্র ২৬ বলে ৫০ ও তামিম ইকবালের ৪৩ বলে অপরাজিত ৫২ রানের বদৌলতে বরিশাল চট্টগ্রামের ১৩৬ রানের টার্গেট তাড়া করতে সাহায্য করে। বরিশালের দুর্দান্ত জয় তাদের কোয়ালিফায়ার ২ -এ পৌঁছাতে সহায়তা করেছিল।

১৩৬ রান তাড়া করতে নেমে তামিম ইকবাল চট্টগ্রামের বোলারদের ছটফট করতে থাকেন। তারা আগে সৌম্য সরকারকে শূন্য রানে হারিয়েছিল কিন্তু এটি কাইল মায়ার্সকে ক্রিজে নিয়ে এসেছিল যিনি আজ বিস্ট মুডে ছিলেন। তিনি শুভাগত হোমকে একটি ওভারে তিনটি ছক্কা এবং দুটি চারে ধূমপান করে ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ করেন। বিলাল খানের কাছে পড়ার আগে মাত্র ২৫ বলে পঞ্চাশ ছুঁয়ে ফেলেন। অধিনায়ক তামিম ইকবাল একপ্রান্ত ধরে জয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন। তামিম ইকবাল দারুণ ৫২ রান করে নিজের দলকে বাড়ি নিয়ে যান।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নামে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। ব্যাট করতে নেমেই তারা সব দেখেন। দ্রুত কিছু উইকেট হারানো এবং পাওয়ারপ্লে কাজে লাগাতে পারেনি। পেশী পুরুষ জোশ ব্রাউন ২২ বলে ৩৪ রান করে ওবেদ ম্যাককয়ের কাছে আউট হয়।
জশ ব্রাউনের পতনের পর চট্টগ্রামে ভয়াবহ পতন ঘটে। অধিনায়ক শুভাগত হোম ১৬ বলে মাত্র ২৪ রান করেন, ব্রাউনের ৩৪ রানের পরে দেখানোর মতো কিছু। এখানে এবং সেখানে স্কোর ২০ ওভারে ১৩৫ রান সংগ্রহ করে, যা শেষ পর্যন্ত বরিশালের একটি মানসম্পন্ন ব্যাটিং লাইনআপের সামনে উল্লেখযোগ্য ছিল না।