ঢাকা ০৪:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কোরআনের কথা এক শ বছর পরও জীবিত

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:১৭:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪
  • / ১০৩ বার পড়া হয়েছে

ছবি-পবিত্র আল কুরআন

হজরত ইবরাহিম (আ.) জাতিকে তওহিদের দাওয়াত দিয়েছেন। তার বাবাকে তওহিদের প্রতি আহ্বান করেছেন, মূর্তি ভেঙেছেন। শাসক নমরুদ ইবরাহিম (আ.)-এর সঙ্গে বিতর্ক হয়। ইবরাহিম (আ) বলেন, আমার আল্লাহ তিনি, যিনি জীবন-মৃত্যু দান করেন। তখন নমরুদ বলল, আমিও তো জীবন ও মৃত্যু দান করি। এ বলে সে দুজন জীবন্ত লোক আনতে বলল। একজনকে মেরে ফেলল অন্যজনকে ছেড়ে দিল। আর বলল এই যে আমি যাকে ইচ্ছা জীবন ও মৃত্যু দিই। তারপর ইবরাহিম (আ.) সূর্য উদয় ও অস্তের কথা বললেন, তখন নমরুদ কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে গেল।

আল্লাহ তাঁর ক্ষমতা দেখানোর ইচ্ছা করলেন। গাধাসহ এক লোককে মৃত্যু দিয়ে একশত বছর মৃত রাখেন। তার সঙ্গে রাখা খাবার নষ্ট করলেন না। এক শ বছর পর জীবিত করে বললেন, ‘তুমি এ অবস্থায় কত দিন ছিলে?’লোকটি বলল, ‘এক দিন অথবা এক দিনের কিছু সময়। পুনরায় যখন জীবিত হলো তখন সূর্য অস্ত যাচ্ছিল। লোকটি ভাবল হয়তো দিনের মধ্যবর্তী সময়টুকু মৃত অবস্থায় ছিলাম। আল্লাহ জানিয়ে দিলেন, তুমি এক শ বছর মৃত ছিলে এবং আল্লাহ নিদর্শনগুলোও দেখিয়ে দিলেন। আল্লাহ সব বিষয়ে ক্ষমতাবান, তিনি ইচ্ছা করলে হাজার বছর পরেও মৃতকে জীবিত করতে পারেন, মানুষ মরে পচে গলে গেলেও পুনর্জীবিত করা তাঁর পক্ষে অসম্ভব নয়। এ লোকটি কে ছিল, তা নিয়ে অনেক বর্ণনা পাওয়া যায়। তার নাম ছিল উজায়ের, তবে প্রকৃত নাম আল্লাহ ভালো জানেন। (সূত্র: তফসিরে ফাতহুল মজিদ)

নিউজটি শেয়ার করুন

কোরআনের কথা এক শ বছর পরও জীবিত

আপডেট সময় ০৫:১৭:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪

হজরত ইবরাহিম (আ.) জাতিকে তওহিদের দাওয়াত দিয়েছেন। তার বাবাকে তওহিদের প্রতি আহ্বান করেছেন, মূর্তি ভেঙেছেন। শাসক নমরুদ ইবরাহিম (আ.)-এর সঙ্গে বিতর্ক হয়। ইবরাহিম (আ) বলেন, আমার আল্লাহ তিনি, যিনি জীবন-মৃত্যু দান করেন। তখন নমরুদ বলল, আমিও তো জীবন ও মৃত্যু দান করি। এ বলে সে দুজন জীবন্ত লোক আনতে বলল। একজনকে মেরে ফেলল অন্যজনকে ছেড়ে দিল। আর বলল এই যে আমি যাকে ইচ্ছা জীবন ও মৃত্যু দিই। তারপর ইবরাহিম (আ.) সূর্য উদয় ও অস্তের কথা বললেন, তখন নমরুদ কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে গেল।

আল্লাহ তাঁর ক্ষমতা দেখানোর ইচ্ছা করলেন। গাধাসহ এক লোককে মৃত্যু দিয়ে একশত বছর মৃত রাখেন। তার সঙ্গে রাখা খাবার নষ্ট করলেন না। এক শ বছর পর জীবিত করে বললেন, ‘তুমি এ অবস্থায় কত দিন ছিলে?’লোকটি বলল, ‘এক দিন অথবা এক দিনের কিছু সময়। পুনরায় যখন জীবিত হলো তখন সূর্য অস্ত যাচ্ছিল। লোকটি ভাবল হয়তো দিনের মধ্যবর্তী সময়টুকু মৃত অবস্থায় ছিলাম। আল্লাহ জানিয়ে দিলেন, তুমি এক শ বছর মৃত ছিলে এবং আল্লাহ নিদর্শনগুলোও দেখিয়ে দিলেন। আল্লাহ সব বিষয়ে ক্ষমতাবান, তিনি ইচ্ছা করলে হাজার বছর পরেও মৃতকে জীবিত করতে পারেন, মানুষ মরে পচে গলে গেলেও পুনর্জীবিত করা তাঁর পক্ষে অসম্ভব নয়। এ লোকটি কে ছিল, তা নিয়ে অনেক বর্ণনা পাওয়া যায়। তার নাম ছিল উজায়ের, তবে প্রকৃত নাম আল্লাহ ভালো জানেন। (সূত্র: তফসিরে ফাতহুল মজিদ)