ঢাকা ০৫:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রাকের ধাক্কায় সিএনজি অটোরিকশায় বিস্ফোরণ, চালক পুড়ে অঙ্গার

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:১৫:২০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
  • / ১০৬ বার পড়া হয়েছে

চট্টগ্রামে পুলিশের ধাওয়া খেলে পালানোর সময় ডাম্প ট্রাকের ধাক্কায় সিএনজি অটোরিকশার সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়েছে। এতে ঘটনাস্থলে পুড়ে অঙ্গার হয়েছেন ওই সিএনজির চালক আবদুস সবুর।

আজ সোমবার চন্দনাইশ উপজেলার গাছবাড়িয়া কলেজ গেইট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আবদুস সবুর সাতকানিয়া উপজেলার পশ্চিম ঢেমশা এলাকার ইছামতি আলীনগরের মফিজুর রহমানের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই ট্রাকের পেছনে সিএনজিচালিত অটোরিকশাটি ছিল। পেছন থেকে পুলিশের একটি গাড়ি ধাওয়া করছিল ট্রাকটিকে। তখন দ্রুত পালাতে গিয়ে অটোরিকশাতে ধাক্কা লাগে। তখনই সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়। মুহূর্তেই অটোরিকশার ভেতরে থাকা চালক পুড়ে অঙ্গার হয়ে যান।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) এ.এন.এম ওয়াসিম ফিরোজ বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছি। যেখানে ঘটনা ঘটেছে, সেখানে জেলা ট্রাফিক পুলিশ থাকার কথা নয়। স্থানীয়রা বলছেন ট্রাফিক পুলিশই করেছে। যার কারণে আমরা আমাদের ট্রাফিক পুলিশ থেকে জিজ্ঞেস করেছি তারা অস্বীকার করেছে। এ মুহূর্তে বিষয়টিতে আমাদের কোনো পুলিশ জড়িত কি না তা তদন্ত ছাড়া বলা যাবে না। বিষয়টি নিয়ে আমরা তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্তের আলোকে যদি আমাদের কোনো পুলিশ জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি খান মোহাম্মদ এরফান বলেছেন, হাইওয়ে পুলিশের কোনো টিম সেখানে ছিল না। হাইওয়ে পুলিশের কোনো লোক ওখানে যায়নি। আমরা যতটুকু জেনেছি, জেলা পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট সবুজের নেতৃত্বে বেলা দেড়টা থেকে সেখানে চেকপোস্ট বসানো হয়েছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্রাকের ধাক্কায় সিএনজি অটোরিকশায় বিস্ফোরণ, চালক পুড়ে অঙ্গার

আপডেট সময় ০৫:১৫:২০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

চট্টগ্রামে পুলিশের ধাওয়া খেলে পালানোর সময় ডাম্প ট্রাকের ধাক্কায় সিএনজি অটোরিকশার সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়েছে। এতে ঘটনাস্থলে পুড়ে অঙ্গার হয়েছেন ওই সিএনজির চালক আবদুস সবুর।

আজ সোমবার চন্দনাইশ উপজেলার গাছবাড়িয়া কলেজ গেইট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আবদুস সবুর সাতকানিয়া উপজেলার পশ্চিম ঢেমশা এলাকার ইছামতি আলীনগরের মফিজুর রহমানের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই ট্রাকের পেছনে সিএনজিচালিত অটোরিকশাটি ছিল। পেছন থেকে পুলিশের একটি গাড়ি ধাওয়া করছিল ট্রাকটিকে। তখন দ্রুত পালাতে গিয়ে অটোরিকশাতে ধাক্কা লাগে। তখনই সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়। মুহূর্তেই অটোরিকশার ভেতরে থাকা চালক পুড়ে অঙ্গার হয়ে যান।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) এ.এন.এম ওয়াসিম ফিরোজ বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছি। যেখানে ঘটনা ঘটেছে, সেখানে জেলা ট্রাফিক পুলিশ থাকার কথা নয়। স্থানীয়রা বলছেন ট্রাফিক পুলিশই করেছে। যার কারণে আমরা আমাদের ট্রাফিক পুলিশ থেকে জিজ্ঞেস করেছি তারা অস্বীকার করেছে। এ মুহূর্তে বিষয়টিতে আমাদের কোনো পুলিশ জড়িত কি না তা তদন্ত ছাড়া বলা যাবে না। বিষয়টি নিয়ে আমরা তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্তের আলোকে যদি আমাদের কোনো পুলিশ জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি খান মোহাম্মদ এরফান বলেছেন, হাইওয়ে পুলিশের কোনো টিম সেখানে ছিল না। হাইওয়ে পুলিশের কোনো লোক ওখানে যায়নি। আমরা যতটুকু জেনেছি, জেলা পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট সবুজের নেতৃত্বে বেলা দেড়টা থেকে সেখানে চেকপোস্ট বসানো হয়েছিল।