ঢাকা ০২:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাংবাদিকের ওপর হামলা, উপজেলা আ. লীগের সভাপতিসহ গ্রেফতার ২

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ০৪:২৬:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪৪ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় সাংবাদিক মিজানুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় প্রধান আসামি কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবর (৫৫) ও তার ছোট ভাই মো. মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমকে (৪২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার ভোর ৬টার দিকে উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের নজর আলী মাতবরপাড়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তারা একই এলাকার মৃত আবুল কাশেম মাতবরের ছেলে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবরসহ তার পরিবারের সদস্যরা কৈয়ারবিল ইউনিয়নের মলমচর এলাকায় এক অসহায় পরিবারের জায়গা দখল করতে যান। এ সময় ওই অসহায় পরিবারের লোকজনকে বলেন, তোমাদের লাশের মাংসও খুঁজে পাওয়া যাবে না। এভাবে হুমকি দেওয়ার একটি ভিডিও সাংবাদিক মিজানুর রহমানের হাতে আসে।

এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের জন্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেবসহ জড়িতদের বক্তব্য জানতে চাওয়ার পর সাংবাদিক মিজানুর রহমানের ওপর ক্ষিপ্ত হন তারা। গত শুক্রবার বিকালে কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সেখানে তার ওপর হামলা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিসহ তার পরিবারের অন্য সদস্যরা। এ সময় তাকে পিটিয়ে আহত করে ক্যামেরা, মোবাইল, মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেন তারা।

এ ঘটনায় গতকাল শনিবার সকালে সাংবাদিক মিজানুর রহমান বাদী হয়ে কুতুবদিয়া থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় ৯ জনকে এজাহারনামীয় ও ৪-৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

 কুতুবদিয়া থানার ওসি মো. গোলাম কবির যুগান্তরকে বলেন, সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় হওয়া মামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও তার ভাই সেলিমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের আদালতে পাঠানো হলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ ঘটনায় অন্য আসামিদের ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

সাংবাদিকের ওপর হামলা, উপজেলা আ. লীগের সভাপতিসহ গ্রেফতার ২

আপডেট সময় ০৪:২৬:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় সাংবাদিক মিজানুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় প্রধান আসামি কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবর (৫৫) ও তার ছোট ভাই মো. মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমকে (৪২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার ভোর ৬টার দিকে উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের নজর আলী মাতবরপাড়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তারা একই এলাকার মৃত আবুল কাশেম মাতবরের ছেলে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবরসহ তার পরিবারের সদস্যরা কৈয়ারবিল ইউনিয়নের মলমচর এলাকায় এক অসহায় পরিবারের জায়গা দখল করতে যান। এ সময় ওই অসহায় পরিবারের লোকজনকে বলেন, তোমাদের লাশের মাংসও খুঁজে পাওয়া যাবে না। এভাবে হুমকি দেওয়ার একটি ভিডিও সাংবাদিক মিজানুর রহমানের হাতে আসে।

এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের জন্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেবসহ জড়িতদের বক্তব্য জানতে চাওয়ার পর সাংবাদিক মিজানুর রহমানের ওপর ক্ষিপ্ত হন তারা। গত শুক্রবার বিকালে কুতুবদিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সেখানে তার ওপর হামলা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিসহ তার পরিবারের অন্য সদস্যরা। এ সময় তাকে পিটিয়ে আহত করে ক্যামেরা, মোবাইল, মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেন তারা।

এ ঘটনায় গতকাল শনিবার সকালে সাংবাদিক মিজানুর রহমান বাদী হয়ে কুতুবদিয়া থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় ৯ জনকে এজাহারনামীয় ও ৪-৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

 কুতুবদিয়া থানার ওসি মো. গোলাম কবির যুগান্তরকে বলেন, সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় হওয়া মামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও তার ভাই সেলিমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের আদালতে পাঠানো হলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ ঘটনায় অন্য আসামিদের ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।