ঢাকা ১২:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছাত্রলীগ নেতার নির্যাতনে স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:২৮:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪
  • / ৭৫ বার পড়া হয়েছে

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের ২৪ দিনের মাথায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতির স্ত্রী মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (৬ মে) দুপুরে হাজীগঞ্জের ১০নং গন্তব্যপুর ইউনিয়নের হরিপুরে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে, নিহত নুসরাত জাহান মাহি (১৮) আত্মহত্যা করতে পারেন বলে ধারণা করছে পুলিশ। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মৃত মাহি শাহরাস্তি উপজেলার উনকিলা গ্রামের মাহমুদ মোরশেদের মেয়ে। তার স্বামী জাকির হোসেন গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। ২৪ দিন আগে তাদের বিয়ে হয়।

স্থানীয়রা জানায়, গত ঈদুল ফিতরের পরদিন হরিপুরে জাকির ও মাহির বিয়ে হয়। বিয়ের আগে তাদের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয় তাদের। তবে পারিবারিক কলহ নাকি অন্য কিছু থেকে মাহি আত্মহত্যা করেছেন তা বোঝা যায়নি।

এ বিষয়ে জাকির হোসেন বলেন, আমি শাহরাস্তিতে একটি স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাষক হিসেবে রয়েছি। দুপুরে ফোনে খবর পেলাম মাহি ফাঁস দিয়েছে। পরে বাড়িতে গিয়ে দেখি সে মারা গেছে। এখন আর কোনো মন্তব্য করার মতো অবস্থা আমার নেই।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশীদ বলেন, খবর পেয়ে আমরা ওই নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ছাত্রলীগ নেতার নির্যাতনে স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

আপডেট সময় ০৫:২৮:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের ২৪ দিনের মাথায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতির স্ত্রী মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (৬ মে) দুপুরে হাজীগঞ্জের ১০নং গন্তব্যপুর ইউনিয়নের হরিপুরে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে, নিহত নুসরাত জাহান মাহি (১৮) আত্মহত্যা করতে পারেন বলে ধারণা করছে পুলিশ। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মৃত মাহি শাহরাস্তি উপজেলার উনকিলা গ্রামের মাহমুদ মোরশেদের মেয়ে। তার স্বামী জাকির হোসেন গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। ২৪ দিন আগে তাদের বিয়ে হয়।

স্থানীয়রা জানায়, গত ঈদুল ফিতরের পরদিন হরিপুরে জাকির ও মাহির বিয়ে হয়। বিয়ের আগে তাদের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয় তাদের। তবে পারিবারিক কলহ নাকি অন্য কিছু থেকে মাহি আত্মহত্যা করেছেন তা বোঝা যায়নি।

এ বিষয়ে জাকির হোসেন বলেন, আমি শাহরাস্তিতে একটি স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাষক হিসেবে রয়েছি। দুপুরে ফোনে খবর পেলাম মাহি ফাঁস দিয়েছে। পরে বাড়িতে গিয়ে দেখি সে মারা গেছে। এখন আর কোনো মন্তব্য করার মতো অবস্থা আমার নেই।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশীদ বলেন, খবর পেয়ে আমরা ওই নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।