ঢাকা ০১:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘প্রেম ঘটিত ছবি’ নিয়ে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৪৪:৫৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪
  • / ৪৫ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়ায় ‘প্রেম ঘটিত ছবি’ নিয়ে বিরোধের জেরে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা রাকিব শাহরিয়ার মুরাদ (২০) কে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে নিহতের বড় ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন।
সোমবার (৬ মে) বিকেল ৫টায় বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর বাজারে এ ঘটনা বলে জানান টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি।

নিহত মুরাদ (২০) ছাত্রলীগের বাহারছড়া ইউনিয়ন কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবং কক্সবাজার হার্ভাড ইন্টারন্যাশনাল কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। তার পিতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি ওসমান গনি বলেন, রাকিব শাহরিয়ার মুরাদের সঙ্গে শামলাপুর এলাকার পার্শ্ববতী উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নে মনখালী এলাকার বাসিন্দা রফিক উল্লাহ ও মো. আদিলের বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল। রফিকের সাথে এক তরুণীর প্রেম ঘটিত ছবি আদান-প্রদান নিয়ে কিছুদিন আগে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হয়। এ নিয়ে কয়েকবার হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে।

ওসি বলেন, সোমবার বিকেলে মুরাদ তার বড় ভাই মামুনকে সঙ্গে নিয়ে স্থানীয় শামলাপুর বাজারে যান। এসময় স্থানীয় একটি মার্কেটের ভিতরে তাদের উপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে রফিক উল্লাহ ও আদিলের নেতৃত্বে ৪-৫ যুবক হামলা চালায়। এতে রাকিব ও মামুন গুরুতর আহত হয়।

পরে তাদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। এ সময় জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক রাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন। আর তার বড় ভাই সেখানে চিকিৎসাধীন।

নিহতের চাচা আরিফ উল্লাহ বলেন, ছবি আদান-প্রদান নিয়ে রাকিব শাহরিয়ার মুরাদের সঙ্গে তার বন্ধু রফিক উল্লাহ ও আদিলের মধ্যে কিছুদিন ধরে বিরোধ ছিল। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কয়েকবার বাকবিতণ্ডা হয়। সোমবার বিকেলে পূর্ব বিরোধের জেরে শামলাপুর বাজারে তাদের দুই ভাইয়ের উপর পরিকল্পিত হামলা চালায়। এতে ছুরিকাঘাত ও দায়ের কোপে মুরাদ নিহত এবং মামুন আহত হয়েছে।

ছাত্রলীগের কক্সবাজার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান বলেন, তুচ্ছ ঘটনার জেরে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালিয়ে ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতাকে খুন করা হয়েছে। দ্রুত অপরাধীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

‘প্রেম ঘটিত ছবি’ নিয়ে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

আপডেট সময় ০৫:৪৪:৫৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়ায় ‘প্রেম ঘটিত ছবি’ নিয়ে বিরোধের জেরে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা রাকিব শাহরিয়ার মুরাদ (২০) কে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে নিহতের বড় ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন।
সোমবার (৬ মে) বিকেল ৫টায় বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর বাজারে এ ঘটনা বলে জানান টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি।

নিহত মুরাদ (২০) ছাত্রলীগের বাহারছড়া ইউনিয়ন কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবং কক্সবাজার হার্ভাড ইন্টারন্যাশনাল কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। তার পিতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি ওসমান গনি বলেন, রাকিব শাহরিয়ার মুরাদের সঙ্গে শামলাপুর এলাকার পার্শ্ববতী উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নে মনখালী এলাকার বাসিন্দা রফিক উল্লাহ ও মো. আদিলের বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল। রফিকের সাথে এক তরুণীর প্রেম ঘটিত ছবি আদান-প্রদান নিয়ে কিছুদিন আগে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হয়। এ নিয়ে কয়েকবার হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে।

ওসি বলেন, সোমবার বিকেলে মুরাদ তার বড় ভাই মামুনকে সঙ্গে নিয়ে স্থানীয় শামলাপুর বাজারে যান। এসময় স্থানীয় একটি মার্কেটের ভিতরে তাদের উপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে রফিক উল্লাহ ও আদিলের নেতৃত্বে ৪-৫ যুবক হামলা চালায়। এতে রাকিব ও মামুন গুরুতর আহত হয়।

পরে তাদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। এ সময় জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক রাকিবকে মৃত ঘোষণা করেন। আর তার বড় ভাই সেখানে চিকিৎসাধীন।

নিহতের চাচা আরিফ উল্লাহ বলেন, ছবি আদান-প্রদান নিয়ে রাকিব শাহরিয়ার মুরাদের সঙ্গে তার বন্ধু রফিক উল্লাহ ও আদিলের মধ্যে কিছুদিন ধরে বিরোধ ছিল। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কয়েকবার বাকবিতণ্ডা হয়। সোমবার বিকেলে পূর্ব বিরোধের জেরে শামলাপুর বাজারে তাদের দুই ভাইয়ের উপর পরিকল্পিত হামলা চালায়। এতে ছুরিকাঘাত ও দায়ের কোপে মুরাদ নিহত এবং মামুন আহত হয়েছে।

ছাত্রলীগের কক্সবাজার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান বলেন, তুচ্ছ ঘটনার জেরে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালিয়ে ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতাকে খুন করা হয়েছে। দ্রুত অপরাধীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।