ঢাকা ০৭:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বন্দরে সংকেত, রবিবার আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:২৬:৫২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪
  • / ৮৩ বার পড়া হয়েছে

বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি আজ শুক্রবার সকালে নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে। এটি আজ মধ্যরাতের মধ্যেই গভীর নিম্নচাপে রূপ নেওয়ার কথা। আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এটি আগামীকাল (শনিবার) সকালেই ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। পরবর্তীতে তা আরো শক্তিশালী হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আগামী রবিবার রাতে বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত করতে পারে।

এমন পরিস্থিতিতে সাগর উত্তাল থাকায় কক্সবাজার এবং চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে এক নম্বর সতর্কসংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশিদ শুক্রবার রাতে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আজ মধ্যরাতের দিকে নিম্নচাপটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। শুক্রবার সকালের মধ্যে এটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। এরপর ঘূর্ণিঝড়টি আরো শক্তিমত্তা অর্জন করতে পারে।

রবিবার রাতে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়টি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করতে পারে। তবে ঘূর্ণিঝড়টির শক্তিশালী অংশ বাংলাদেশের সুন্দরবন ও পটুয়াখালীতে আঘাত করার আশঙ্কা বেশি।’
নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে এর নাম হবে ‘রেমাল’। আরবি রিমাল শব্দের অর্থ বালি।

এটি মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমানের দেওয়া নাম।
এদিকে ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তরও (আইএমডি) জানিয়েছে, নিম্নচাপটি আরও উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়ে শনিবার সকাল ৬টার মধ্যে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরে এসে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। পরে এটি কিছুটা উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে এবং শক্তি বাড়িয়ে শনিবার রাত ১২টার মধ্যে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। আরো উত্তর দিকে অগ্রসর হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি রবিবার রাত ১২টার দিকে বাংলাদেশ ও পার্শ্ববর্তী পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আজও সারা দেশে বৃষ্টি কম থাকতে পারে।

ফলে তাপপ্রবাহ ও ভ্যাপসা গরম অব্যাহত থাকতে পারে। তবে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আগামীকাল থেকে সারা দেশে বৃষ্টি বাড়তে পারে।
আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রবিবার থেকে বৃষ্টি অনেকটাই বাড়তে পারে। এদিন ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের দুই-এক জায়গায় ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। দেশের দক্ষিণ অঞ্চলের দিনের তাপমাত্রা কমতে পারে ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে দেশের নানা অঞ্চলে তা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

বন্দরে সংকেত, রবিবার আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’

আপডেট সময় ১০:২৬:৫২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি আজ শুক্রবার সকালে নিম্নচাপে রূপ নিয়েছে। এটি আজ মধ্যরাতের মধ্যেই গভীর নিম্নচাপে রূপ নেওয়ার কথা। আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এটি আগামীকাল (শনিবার) সকালেই ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। পরবর্তীতে তা আরো শক্তিশালী হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আগামী রবিবার রাতে বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত করতে পারে।

এমন পরিস্থিতিতে সাগর উত্তাল থাকায় কক্সবাজার এবং চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে এক নম্বর সতর্কসংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশিদ শুক্রবার রাতে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আজ মধ্যরাতের দিকে নিম্নচাপটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। শুক্রবার সকালের মধ্যে এটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। এরপর ঘূর্ণিঝড়টি আরো শক্তিমত্তা অর্জন করতে পারে।

রবিবার রাতে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়টি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করতে পারে। তবে ঘূর্ণিঝড়টির শক্তিশালী অংশ বাংলাদেশের সুন্দরবন ও পটুয়াখালীতে আঘাত করার আশঙ্কা বেশি।’
নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে এর নাম হবে ‘রেমাল’। আরবি রিমাল শব্দের অর্থ বালি।

এটি মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমানের দেওয়া নাম।
এদিকে ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তরও (আইএমডি) জানিয়েছে, নিম্নচাপটি আরও উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়ে শনিবার সকাল ৬টার মধ্যে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরে এসে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। পরে এটি কিছুটা উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে এবং শক্তি বাড়িয়ে শনিবার রাত ১২টার মধ্যে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। আরো উত্তর দিকে অগ্রসর হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি রবিবার রাত ১২টার দিকে বাংলাদেশ ও পার্শ্ববর্তী পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আজও সারা দেশে বৃষ্টি কম থাকতে পারে।

ফলে তাপপ্রবাহ ও ভ্যাপসা গরম অব্যাহত থাকতে পারে। তবে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আগামীকাল থেকে সারা দেশে বৃষ্টি বাড়তে পারে।
আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রবিবার থেকে বৃষ্টি অনেকটাই বাড়তে পারে। এদিন ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের দুই-এক জায়গায় ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। দেশের দক্ষিণ অঞ্চলের দিনের তাপমাত্রা কমতে পারে ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে দেশের নানা অঞ্চলে তা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।