ঢাকা ০৬:৫৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছাত্রদল নেতার প্রকাশ্যে দোকান মালিককে লক্ষ্য করে ফিল্মি স্টাইলে গুলি!

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১১:০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০২৪
  • / ৫৬ বার পড়া হয়েছে

নরসিংদীতে একটি দোকানের মালিককে প্রকাশ্যে গুলি করার ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে কেউ বিদ্ধ কিংবা হতাহত হয়নি। গতকাল সোমবার (৩ মে) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে চিনিশপুরের জেলাখানা মোড়ে স্থানীয় ওহাব মোল্লার মালিকানাধীন মোল্লা ট্রেডার্সে এ ঘটনা ঘটে। একটি মারামারির আপোষ মীমাংসা করতে গিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দোকান মালিক ওহাব মোল্লার ছেলে মোহিদ মোল্লাকে লক্ষ্য করে রবিউল ইসলাম ভূইয়া রবি নামের এক যুবক পরপর তিন রাউন্ড গুলি ছোড়েন। এ ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার পর গতকাল রাতে ভুক্তভোগী মোহিদ মোল্লা বাদী হয়ে রবিউল ইসলাম রবিসহ দুই জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এ ঘটনার দুই মিনিট ১৬ সেকেন্ডের একটি সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, মোল্লা ট্রেডার্স নামক একটি স্টিলের দোকানের সামনে লাল টিশার্ট পরিহিত দুই যুবকসহ কিছু সংখ্যক মানুষের জটলা।

দোকানের ভেতরেও কিছু সংখ্যক মানুষ। এরমধ্যে সামনে গিয়ে দফায় দফায় লাল টিশার্ট পরিহিত এক যুবক উত্তেজিত হয়ে দোকানের ভেতর লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়েন। এর মধ্যে কেউ একজন গুলিবর্ষণকারী উত্তেজিত যুবককে থামানোর চেষ্টাও করেন।
ভুক্তভোগী মোহিদ মোল্লা বলেন, ‘রবি ছাত্রদল নেতা সাদেক ও আশরাফুল হত্যা মামলার আসামি।

হত্যা মামলার আসামি হয়েও প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে ঘুরাঘুরি করে। সে আজকে আমার দোকানে এসে আমাকে লক্ষ্য করে তিনটি গুলি ছুঁড়ে। তার একটি গুলি লাগলে বেঁচে থাকতাম কী-না জানি না।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় আছি। প্রশাসনের নিকট আহ্বান জানাচ্ছি তাকে যেন দ্রুততম সময়ে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হয়।

এই ধরনের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ সমাজের জন্য অশনি সংকেত।’
নরসিংদী সদর থানার ওসি তানভীর আহমেদ বলেন, ‘ঘটনাটি জানার পর আমরা সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওখানকার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে আমাদের বেশ কয়েকটি টিম কাজ করছে। আশা করছি দ্রুততম সময়ে তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে সক্ষম হবো।’

তিনি আরো বলেন, ‘ঘটনাটি কোনো চাঁদাবাজির ঘটনা নয়। সম্প্রতি মোহিদ মোল্লার ভাগিনার সঙ্গে অভিযুক্ত রবির পরিচিত একজনের ঝামেলা হয়েছে। সেই ঘটনার আপোষ মীমাংসার সমন্বয় করতে আসে রবি। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তারপর রবি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে তিন রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।’

অভিযুক্ত রবিউল ইসলাম রবি তরোয়া মহল্লার কামাল হোসেন ভূইয়ার ছেলে। তিনি জেলা ছাত্রদলের কর্মী। জেলা ছাত্রদল নেতা সাদেকুর রহমান সাদেকসহ জোড়া খুনের মামলার আসামি তিনি। ২০২৩ সালের ২৫ মে বিকেলে একই এলাকায় প্রকাশ্য দিবালোকে জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক সাদেকুর রহমান সাদেক ও ছাত্রদল কর্মী আশরাফুল ইসলামকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

নিউজটি শেয়ার করুন

ছাত্রদল নেতার প্রকাশ্যে দোকান মালিককে লক্ষ্য করে ফিল্মি স্টাইলে গুলি!

আপডেট সময় ১১:০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০২৪

নরসিংদীতে একটি দোকানের মালিককে প্রকাশ্যে গুলি করার ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে কেউ বিদ্ধ কিংবা হতাহত হয়নি। গতকাল সোমবার (৩ মে) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে চিনিশপুরের জেলাখানা মোড়ে স্থানীয় ওহাব মোল্লার মালিকানাধীন মোল্লা ট্রেডার্সে এ ঘটনা ঘটে। একটি মারামারির আপোষ মীমাংসা করতে গিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দোকান মালিক ওহাব মোল্লার ছেলে মোহিদ মোল্লাকে লক্ষ্য করে রবিউল ইসলাম ভূইয়া রবি নামের এক যুবক পরপর তিন রাউন্ড গুলি ছোড়েন। এ ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার পর গতকাল রাতে ভুক্তভোগী মোহিদ মোল্লা বাদী হয়ে রবিউল ইসলাম রবিসহ দুই জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এ ঘটনার দুই মিনিট ১৬ সেকেন্ডের একটি সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, মোল্লা ট্রেডার্স নামক একটি স্টিলের দোকানের সামনে লাল টিশার্ট পরিহিত দুই যুবকসহ কিছু সংখ্যক মানুষের জটলা।

দোকানের ভেতরেও কিছু সংখ্যক মানুষ। এরমধ্যে সামনে গিয়ে দফায় দফায় লাল টিশার্ট পরিহিত এক যুবক উত্তেজিত হয়ে দোকানের ভেতর লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়েন। এর মধ্যে কেউ একজন গুলিবর্ষণকারী উত্তেজিত যুবককে থামানোর চেষ্টাও করেন।
ভুক্তভোগী মোহিদ মোল্লা বলেন, ‘রবি ছাত্রদল নেতা সাদেক ও আশরাফুল হত্যা মামলার আসামি।

হত্যা মামলার আসামি হয়েও প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে ঘুরাঘুরি করে। সে আজকে আমার দোকানে এসে আমাকে লক্ষ্য করে তিনটি গুলি ছুঁড়ে। তার একটি গুলি লাগলে বেঁচে থাকতাম কী-না জানি না।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় আছি। প্রশাসনের নিকট আহ্বান জানাচ্ছি তাকে যেন দ্রুততম সময়ে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হয়।

এই ধরনের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ সমাজের জন্য অশনি সংকেত।’
নরসিংদী সদর থানার ওসি তানভীর আহমেদ বলেন, ‘ঘটনাটি জানার পর আমরা সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওখানকার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে আমাদের বেশ কয়েকটি টিম কাজ করছে। আশা করছি দ্রুততম সময়ে তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে সক্ষম হবো।’

তিনি আরো বলেন, ‘ঘটনাটি কোনো চাঁদাবাজির ঘটনা নয়। সম্প্রতি মোহিদ মোল্লার ভাগিনার সঙ্গে অভিযুক্ত রবির পরিচিত একজনের ঝামেলা হয়েছে। সেই ঘটনার আপোষ মীমাংসার সমন্বয় করতে আসে রবি। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তারপর রবি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে তিন রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।’

অভিযুক্ত রবিউল ইসলাম রবি তরোয়া মহল্লার কামাল হোসেন ভূইয়ার ছেলে। তিনি জেলা ছাত্রদলের কর্মী। জেলা ছাত্রদল নেতা সাদেকুর রহমান সাদেকসহ জোড়া খুনের মামলার আসামি তিনি। ২০২৩ সালের ২৫ মে বিকেলে একই এলাকায় প্রকাশ্য দিবালোকে জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক সাদেকুর রহমান সাদেক ও ছাত্রদল কর্মী আশরাফুল ইসলামকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা