ঢাকা ০৩:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মহিলা লীগ নেত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ

নিউজ ডেস্ক:-
  • আপডেট সময় ১০:০৯:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪
  • / ৯৬ বার পড়া হয়েছে

ফেনীর সোনাগাজীতে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মহিলা লীগ নেত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। এতে ফেনীর আদালতে মামলা দায়ের করেছেন ওই নেত্রী।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করার পর বিচারক অভিযোগ তদন্ত করে সোনাগাজী মডেল থানার ওসিকে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

অভিযুক্ত আ.লীগ নেতার নাম গোলাম এহতেশামুল হক বিপ্লব (৪০)। তিনি সোনাগাজী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক। এ ছাড়াও তিনি পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড আবসার উদ্দিন পাটোয়ারী বাড়ির মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মাওলার ছেলে।

শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন চরচান্দিয়া ইউনিয়ন মহিলা আ.লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য রোকেয়া পারভিন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড নদীভাঙন এলাকায় আবছার উদ্দিন বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে গত ২০ মে স্কুলের সামনে শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে নেতৃত্ব দেন চরচান্দিয়া ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রোকেয়া পারভিন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এহতেশামুল হক বিপ্লব রোকেয়াকে হুমকি-ধমকি দিতে থাকেন।

২০ মে বিকেল ৪টার দিকে সোনাগাজী উপজেলা শহরের জিরোপয়েন্টে রোকেয়াকে একা পেয়ে বিপ্লব অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন। রোকেয়া এর প্রতিবাদ করলে তাকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেন। এতে রোকেয়ার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। এ সময় রোকেয়ার শ্লীলতাহানিও করেন তিনি। এরপর বাড়াবাড়ি করলে মেরে লাশ গুম করার হুমকিও দেন বিপ্লব।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী রোকেয়া পারভিন জানান, আমি একটি স্কুল বাঁচানোর আন্দোলন করেছি। বিপ্লব আমার সঙ্গে যা করেছে সেই ঘটনায় আদালতে মামলা করেছি।

এ ব্যাপারে গোলাম এহতেশামুল হক বিপ্লবের মোবাইল নম্বরে কল দিলেও ফোন রিসিভ হয়নি।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সুদ্বীপ রায় পলাশ জানান, রোকেয়া পারভীনের মামলার কোনো আদেশ এখনো সোনাগাজী থানায় এসে পৌঁছায়নি। আদালতের নির্দেশনা পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মহিলা লীগ নেত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ

আপডেট সময় ১০:০৯:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

ফেনীর সোনাগাজীতে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মহিলা লীগ নেত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। এতে ফেনীর আদালতে মামলা দায়ের করেছেন ওই নেত্রী।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করার পর বিচারক অভিযোগ তদন্ত করে সোনাগাজী মডেল থানার ওসিকে প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

অভিযুক্ত আ.লীগ নেতার নাম গোলাম এহতেশামুল হক বিপ্লব (৪০)। তিনি সোনাগাজী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক। এ ছাড়াও তিনি পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড আবসার উদ্দিন পাটোয়ারী বাড়ির মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মাওলার ছেলে।

শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন চরচান্দিয়া ইউনিয়ন মহিলা আ.লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য রোকেয়া পারভিন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড নদীভাঙন এলাকায় আবছার উদ্দিন বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে গত ২০ মে স্কুলের সামনে শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে নেতৃত্ব দেন চরচান্দিয়া ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রোকেয়া পারভিন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এহতেশামুল হক বিপ্লব রোকেয়াকে হুমকি-ধমকি দিতে থাকেন।

২০ মে বিকেল ৪টার দিকে সোনাগাজী উপজেলা শহরের জিরোপয়েন্টে রোকেয়াকে একা পেয়ে বিপ্লব অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন। রোকেয়া এর প্রতিবাদ করলে তাকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেন। এতে রোকেয়ার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। এ সময় রোকেয়ার শ্লীলতাহানিও করেন তিনি। এরপর বাড়াবাড়ি করলে মেরে লাশ গুম করার হুমকিও দেন বিপ্লব।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী রোকেয়া পারভিন জানান, আমি একটি স্কুল বাঁচানোর আন্দোলন করেছি। বিপ্লব আমার সঙ্গে যা করেছে সেই ঘটনায় আদালতে মামলা করেছি।

এ ব্যাপারে গোলাম এহতেশামুল হক বিপ্লবের মোবাইল নম্বরে কল দিলেও ফোন রিসিভ হয়নি।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সুদ্বীপ রায় পলাশ জানান, রোকেয়া পারভীনের মামলার কোনো আদেশ এখনো সোনাগাজী থানায় এসে পৌঁছায়নি। আদালতের নির্দেশনা পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।